অনস্ক্রিনে আবারও সাহসী ঋতুপর্ণা

১৫২

নারীদের কথা ছবিতে আসুক তিনি চান ৷ কিন্তু তিনি নিজে বা তাঁর কাজে নারীবাদী-এমন তকমা চান না ঋতুপর্ণা ৷ বললেন, ‘‘আমার ধারণা আমরা যে সমাজে বাস করি, সেখানে ছেলেদের পাশাপাশি মেয়েরাও সমান সমান জায়গা পাওয়া উচিত ৷ কেননা সমাজে মেয়েদের অবদান কিছু কম নয় ৷ সবরকমভাবেই কন্ট্রিবিউট করছে মেয়েরা ৷ আমি ফেমিনিজম বা এরকম কোনও কিছু বলছি না, কিন্তু হারমোনিয়াস কো-একজিসটেন্স যেন থাকে ৷’’

বাংলা ছবিতে তিনি অদ্বিতীয়া। সাম্প্রতিক অতীতে নারীকেন্দ্রিক বাংলা সিনেমার মুখ যদি বলা হয় তবে তিনি প্রায় একক ৷ ছবির ব্যবসা যেমনই হোক না কেন, ছবিতে নারীদের নিজের কথা তুলে ধরা থেকে থেমে থাকেননি তিনি। আজ যখন বলিউড সোচ্চার তাঁদের নায়িকাদের সাফল্য নিয়ে, তখন অনেকদিন আগে থেকেই বাংলায় নায়িকা নির্ভর ছবি এবং নায়িকাদের জায়গাকে পাকা করতে সমান উদ্যমে কাজ করে চলেছেন তিনি ৷

সুচিত্রা ভট্টাচার্যের উপন্যাস অবলম্বনে এই ছবির চিত্রনাট্য সাজিয়েছেন অগ্নিদেব। গল্প অনুযায়ী সোহিনী (ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত) এবং ভাস্কর (দেবশঙ্কর হালদার) দম্পতি। কিন্তু অসুখী দাম্পত্য ছেড়ে বেরিয়ে আসতে চান সোহিনী। সে সময় ভাস্করের ছোটবেলার বন্ধু অনুপম (কৌশিক সেন)-এর সঙ্গে ঘনিষ্ঠ হয়ে পড়েন তিনি। এর মধ্যেই ভাস্করের ব্রেন টিউমার ধরা পড়ে। কী হবে এর পর? কোন দিকে বাঁক নেবে গল্প? তাই নিয়েই এগোবে এ সিনেমা। প্রধান তিন চরিত্রে অভিনয় করেছেন ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত, দেবশঙ্কর হালদার এবং কৌশিক সেন।

শুটিং প্রায় দু’বছর আগে শেষ হয়েছে। সব কিছু ঠিক থাকলে আগামী সপ্তাহে মুক্তি পেতে চলেছে ছবিটি।

 

নিউজ ডেস্ক / বিজয় টিভি

You might also like