অবসরের বিষয়ে মাশরাফিকেই সিদ্ধান্ত নিতে দিন : পাপন

১৫

মাশরাফি বিন মোর্তাজার অবসরের বিষয়ে বলটি এখন তার কোর্টেই পাঠিয়ে দিয়েছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। ২০১৯ ইংল্যান্ড বিশ্বকাপের পর থেকেই মাশরাফির অবসর নিয়ে চলছে নানান জল্পনা কল্পনা। যার অবসান ঘটালেন বিসিবি প্রধান।

গতকাল (রোববার) সিলেটের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে গণমাধ্যমকে পাপন বলেন, ‘কখন অবসর নেবেন তার সিদ্ধান্ত নেবার অধিকার নিশ্চয় মাশরাফির রয়েছে। একই সময় তিনি এটিও বলেন যে, ২০২৩ বিশ্বকাপের দিকে তাকিয়ে দলের পরবর্তী অধিনায়ক চুড়ান্ত করবে বোর্ড।’ আগামী ৮ মার্চ মিরপুরের বিসিবি কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হবে বোর্ড সভা।

যদিও বিসিবির ইচ্ছা পুরণ করেননি মাশরাফি। ঘোষণা দেননি অবসরের। এ সময় অবশ্য কুচকির ইনজুরির কারণে শ্রীলংকায় ওডিআই সিরিজে অংশ নেননি তিনি। শুধু মাত্র ওয়ানডে ক্রিকেটে থাকা মাশরাফি জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে বর্তমান সিরিজের আগে নিকট অতীতে আর কোন ওয়ানডে ম্যাচে অংশ নেননি।

তবে এই সময় একটি হোম সিরিজ আয়োজনের মাধ্যমে মাশরাফিকে জমকালো বিদায় জানানোর একটি প্রস্তাব দিয়েছিলেন বিসিবি সভাপতি। এরপর থেকে তার অবসরের বিষয়টি বার বার উঠে এসেছে গনমাধ্যমের শিরোনামে। জবাবে মাশরাফি সেটি প্রত্যাখ্যান করে খেলা চালিয়ে যাবার কথা জানিয়ে দেন।

পরে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তিন ম্যাচের এই সিরিজেরর জন্য বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক হিসেবে মাশরাফিকে অন্তর্ভুক্ত করে বিসিবি। আর পাপন স্পষ্ট করে জানিয়ে দেন যে অধিনায়ক হিসেবে এটিই হচ্ছে মাশরাফির শেষ সিরিজ। এরপর সাধারণ খেলোয়াড় হিসেবে দলে ঢুকতে হলে তাকে যোগ্যতার পরীক্ষায় উত্তীর্ন হতে হবে।

তবে পরিস্থিতি আরো ঘোলাটে হয়, যখন প্রথম ম্যাচের আগে সংবাদ সম্মেলনে মশরাফি ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানান। এ সময় গণমাধ্যম কর্মীরা যখন প্রশ্ন করেন যে নিজের বর্তমান পারফর্মেন্স মাশরাফির আত্মমর্যাদায় আঘাত লাগছে কিন, এর জবাবে ক্ষীপ্ত হয়ে তিনি বলেন, আত্ম মর্যাদায় আঘাত লাগবে কেন? আমি মাঠে আছি বলে কি আত্ম মর্যাদা চলে যাবে? আমি কি চোর? ক্রিকেট খেলাকে আমি আত্ম মর্যাদার আঘাত বা অসম্মানের মনে করি না। এখানে অনেক লোক আছেন, যারা চুরি ও প্রতারনা করেন। তারা যা করছে তাতে তাদের আত্ম মর্যাদায় আঘাত লাগে না? আমি উইকেট পাচ্ছিনা বলেই ক্রিকেট খেলার জন্য আমার মান সম্মানের হানি হবে? আমি কি চোর?’

পাপন বিস্তারিত কিছু না বলে জানান, মাশরাফি ইতোমধ্যে জানিয়ে দিযেছেন অবসর নিয়ে তার ভাবনার কথা। তিনি বলেন,‘ আমি সংবাদ সম্মেলনটি দেখেছি। আপনারা (গণমাধ্যম)এ সময় তাকে বেশি চাপাচাপি করেছেন। বর্তমানে তিনি যে অবস্থার মধ্যে যাচ্ছেন তাতে আপনাদের উচিৎ তার পাশে থাকা। আপনারা তাকে কস্ট দিতে পারেন না। যা হোক এই মুহুর্তে আমরা এটি নিয়ে আলোচনা করতে চাই না। তিনি কি চান তা ইতোমধ্যে বলে দিয়েছেন। ’

বিসিবি প্রধান বলেন,‘ আমি আগেই বলেছি, খেলোয়াড় হিসেবে যেমন সাকিবের বিকল্প নেই, তেমনি দলনেতা হিসেবে মাশরাফির বিকল্প নেই। আপনারা যদি খেয়াল করেন তাহলে দেখবেন আমরা তাকে প্রচুর সুযোগ দিয়েছি। যেমনটি অন্য কারো ক্ষেত্রে হয়না। মাশরাফির বিষয়টি একেবারেই আলাদা।’

অনলাইন নিউজ ডেস্ক/বিজয় টিভি

You might also like