অভিমানে স্ত্রীর সামনেই নদীতে ঝাঁপ দিয়ে যুবকের আত্মহত্যা

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার শেখ হাসিনা ধরলা সেতু থেকে ঝাঁপ দিয়ে এক যুবক আত্মহত্যা করেছে। এ সময় সেখানে তার স্ত্রী উপস্থিত ছিলেন। আজ (রবিবার) দুপুরে সেতুর মধ্য পয়েন্টে এ ঘটনা ঘটে।

মৃত যুবকের নাম জোবায়ের আলম জয় (২২)। তিনি উপজেলার চন্দ্রখানা কলেজপাড়ার স্কুল শিক্ষক আমীর হোসেনের ছেলে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সুত্রে জানা যায়, দুপুরে স্ত্রীসহ অটোবাইক যোগে শ্বশুড়বাড়ী লালমনিরহাট যাচ্ছিল জয়। এসময় কিছু একটা নিয়ে দুজনের মাঝে মৃদু কথা কাটাকাটি এবং অভিমান চলছিলো।

অটোবাইকটি সেতুর মধ্যবর্তী স্থানে পৌঁছালে জয় হঠাৎ অটো থামিয়ে নেমে পড়ে। শিউলি বেগম অটো থেকে নামার আগেই জয় দৌড়ে সেতুর রেলিংয়ের ওপর উঠে নদীতে ঝাঁপিয়ে পড়ে।

নদীর তীব্র স্রোতের টানে সঙ্গে সঙ্গেই গভীর পানিতে ডুবে যায় সে। চোখের সামনে স্বামীকে নদীতে ঝাঁপিয়ে পড়তে দেখে আহাজারি করতে করতে জ্ঞান হারান স্ত্রী শিউলি বেগম।

পরে পরিবারের লোকজন এসে শিউলিকে ফুলবাড়ী হাসপাতালে ভর্তি করে। খবর পেয়ে ফুলবাড়ী থানা পুলিশ ও নাগেশ্বরী ফায়ার সার্ভিসের একটি দল ঘটনাস্থলে এসে উদ্ধার তৎপরতা চালায়। প্রায় দুই ঘণ্টা পর জয়ের মরদেহ করে উদ্ধার করতে সক্ষম হয় ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল।

ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রাজীব কুমার রায় বলেন, কারো কোনও অভিযোগ না থাকায় মরদেহ তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় একটি ইউডি মামলা করা হয়েছে।

নিউজ ডেস্ক/বিজয় টিভি