আইনের শাসন ও ন্যায়বিচার নিশ্চিতে বিচারকদের ভূমিকা অপরিহার্য : আইনমন্ত্রী

৫৬

আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠায় আইনের শাসন ও ন্যায় বিচার নিশ্চিত করতে বিচারকগনের ভূমিকা অপরিহার্য।

আজ রোববার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট, অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ এবং সমপর্যায়ের বিচার বিভাগীয় কর্মকর্তাদের জন্য আয়োজিত ৭ম ওরিয়েন্টেশন কোর্সের অনলাইন উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় আইনমন্ত্রী এ কথা বলেন।

আনিসুল হক বলেন, করোনা সংক্রমণ জনিত উদ্ভূত পরিস্থিতির কারণে তথ্য প্রযুক্তির সুবিধা ব্যবহার করে এ অনলাইন ওরিয়েন্টেশন কোর্সের আয়োজন করা হয়েছে। তিনি বলেন, মহামারি জনিত উদ্ভূত পরিস্থিতিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বে জনগণের ন্যায়বিচার নিশ্চিতে ভার্চুয়াল বিচার কার্যক্রম চালু হয়। এতে জনগণ সুফল পাচ্ছেন।

আইনমন্ত্রী বলেন, দেশে ৩৭ লাখ মামলা নিষ্পত্তির অপেক্ষায় রয়েছে। এ মামলা জট থেকে পরিত্রাণ পেতে বিচারকদের দক্ষতা ও মেধা কার্যকর ভূমিকা রাখবে। তাছাড়া এ অবস্থা নিরসনের লক্ষ্যে বিভিন্ন ক্ষেত্রে মামলা নিষ্পত্তিতে সময় নির্ধারণ করে দেয়া হয়েছে। ইতোমধ্যে মামলার তারিখ ও বৃত্তান্ত জানাতে এসএমএস সার্ভিস চালু করা হয়েছে। বিকল্প বিরোধ নিষ্পত্তি তথা এডিআর পদ্ধতিকে তরান্বিত করা হয়েছে।

আইনমন্ত্রী বলেন, ২ হাজার ৮’শ কোটি টাকার ই- জুডিশিয়ারী প্রকল্প পাসের অপেক্ষায় রয়েছে। বিচারকদের বিভিন্ন লজিস্টিক সাপোর্ট বৃদ্ধির ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। জেলায় বিচারকদের আবাসন নিশ্চিতে কাজ চলছে।

আনিসুল হক বলেন, একবিংশ শতাব্দীর সঙ্গে তালমিলিয়ে চলতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় এসডিজি ও ভিশন-২০৪১ বাস্তবায়নে নানা পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। তিনি বলেন, বিচারকদের দক্ষতা বৃদ্ধিতে ভারত, অষ্ট্রেলিয়া, চীনে ইতোমধ্যে অনেক বিচারক প্রশিক্ষণের সূযোগ পেয়েছেন। আরো দেশেও বিচারকদের প্রশিক্ষণের সূযোগে কাজ চলছে।

আইনমন্ত্রী বলেন, বিচার বিভাগের মর্যাদা আরো বৃদ্ধিতে বিচারকদের ভূমিকা অপরিহার্য। তিনি করোনা সংক্রমণ জনিত উদ্ভূত পরিস্থিতির মাঝে ভার্চুয়াল পদ্ধতিতে বিচার কার্যক্রম পরিচালনার জন্য বিচারকদের ধন্যবাদ জানান।

You might also like