আইসিজের রায়কে স্বাগত জানিয়েছে ঢাকা

৫০

রোহিঙ্গাদের ওপর নৃশংসতার বিষয়ে আইসিজের (আন্তর্জাতিক বিচার আদালত) রায়কে স্বাগত জানিয়ে একে মানবতার বিজয় এবং সকল জাতির মানবাধিকার আন্দোলন কর্মীদের জন্য মাইলফলক হিসাবে বর্ণনা করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আব্দুল মোমেন।

নেদারল্যান্ডের হেগ নগরীতে আইসিজে কর্তৃক এই রায়ের কপি সরবরাহের পর পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইকুয়েডোর থেকে ফোনে বলেন, “আমরা এই রায়কে স্বাগত জানাই…আমার বিশ্বাস মিয়ানমার এই আদালতকে সম্মান জানাবে…তাদের (মিয়ানমার) পক্ষে একে অগ্রাহ্য করা সম্ভব হবে না।”

জাতিসংঘের শীর্ষ আদালত আজ মিয়ানমারকে রোহিঙ্গাদের ওপর কথিত গণহত্যা বন্ধ করার জন্য জরুরি ভিত্তিতে পদক্ষেপ গ্রহনের পাশাপাশি চার মাসের মধ্যে রিপোর্ট দিতে এবং অত:পর প্রতি ৬ মাসে রিপোর্ট দিতে বলেছে।

আব্দুল মোমেন বলেন, এই রায় দুইভাবে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের ক্ষেত্রে সুফল বয়ে আনবে। একদিকে মিয়ানমার এখন থেকেই তাদের লোকদের ফিরিয়ে নিতে রাখাইনে অনুকুল পরিবেশ তৈরিতে আরো আন্তরিক হবে। অপর দিকে রোহিঙ্গরা স্বেচ্ছায় নিজ ঘর-বাড়িতে ফিরে যেতে ভরসা পাবে।

তিনি বলেন, “আন্তর্জাতিক আদালত-আইসিজে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে কোন প্রকার নৃশংসতা না চালানোর নির্দেশনা দিয়েছেন…এটি তাদেরকে (রোহিঙ্গা স্বেচ্ছায় প্রত্যাবাসনে আস্থাশীল করবে।”

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এই রায় মিয়ানমারের ওপর বিরাট আন্তর্জাতিক চাপ সৃষ্টি করবে এবং এই রায়ের ভিত্তিতে রাশিয়া এবং চীনও রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরুর জন্য মিয়ানমারের ওপর চাপ দেবে।

অনলাইন নিউজ ডেস্ক/বিজয় টিভি

You might also like