এই সপ্তাহের বলিউডের বক্স অফিস

১৪৭

আনতারা রাইসা: বলিউডে তো প্রতি সপ্তাহেই নতুন ছবি আসতে থাকে। বদলে যেতে থাকে বক্স অফিসের চেহারা। কিছু ছবি তো কোটির মাইলফলক ছুঁয়ে ফেলে আবার কিছু ছবি তাদের বাজেটের টাকা উঠাতেই হিমশিম খায়। দর্শকের মন মর্জির ও ওঠানামা হয়।

ট্রেইলার দেখে অনেক ছবি সম্পর্কে অনেক বেশি আগ্রহ উদ্দীপনা থাকলেও পড়ে ছবি দেখে দর্শকদের আশাভঙ্গ হয়। তাই মুক্তির প্রথম দিকে কোনও ছবি ভালো ব্যবসা করলেও দেখা যায় তারা পরে আর সেটা ধরে রাখতে পারছেনা।  বক্স অফিসের  টপ ৩ প্রতি সপ্তাহেই বদলে যেতে থাকে।

১। পাতি পাত্নি অর ও

ছবিটি ১৯৭৮ সালের একটি রিমেক ছবি । ছবিটির মূল নাম এখানে বদল করা হয়নি। সেই সময় ছবিটি তেমন ব্যবসা সফল হয়নি। তবে বক্স অফিস দেখে বোঝা যাচ্ছে এই রিমেক ছবিটি খুব ভালো ব্যবসা করেছে।

ছবিটি মুক্তি পেয়েছে ৬ ডিসেম্বর। একই দিনে মুক্তি পেয়েছিল বিখ্যাত পরিচালক আশুতোষ গোয়ারিকর এর ঐতিহাসিক ছবি পানিপথ। তা সত্ত্বেও ছবিটি দর্শকদের মন কেড়ে নিয়েছে। এবং সম্পূর্ণ দুই ধাঁচের দুটি ছবি একই দিনে মুক্তির পর ও এই কমেডি রোমান্টিক ধাঁচের ছবিটি বক্স অফিসে জায়গা করে নিয়েছে ১ নম্বরে।

পাতি পাত্নি অর ও

ছবিটি মুক্তির প্রথম দিন ই আয় করে নিয়েছে ৯.১০কোটি রুপি। যা কার্তিক আরিয়ানের আগের সব ছবির থেকে অনেক বেশি। যা মুক্তির তৃতীয় দিনে বেড়ে দাঁড়ায় ১৪.৫১ কোটিতে। ছবিটি প্রথম সপ্তাহ শেষে আয় করেছে ৩৫.৯৪ কোটি।

এই হিসাব থেকেই বোঝা যায় দর্শকদের কাছে এই ছবিটি কতটুকু সমাদৃত হয়েছে। ছবিটির গল্প খুব গতানুগতিক হলেও ছবির প্রধান তিন চরিত্র কার্তিক আরিয়ান, অনন্যা পাণ্ডে এবং ভূমি পারেকার এই তিনজনের অভিনয় ছবিতে ছিল অসাধারণ। ছবিটিতে তাদের তিন জনের জুটি দর্শক খুবই ইতিবাচক ভাবে নিয়েছে ।

দর্শক দের কাছে ছবিটি সমাদৃত হলেও সমালোচকরা এই ছবি নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন। কেউ এটিকে যেমন ঝাকাস বলেছেন তেমনি কেউ এটিকে বলেছেন ইমোশনাল মেলোড্রামা।

ছবিতে দেখানো হয় কার্তিক এবং ভূমি একজন বিবাহিত দম্পতি। কিন্তু কার্তিক অনন্যার প্রেমে পরে যাওয়ার পর কি হয় তাই নিয়ে এগিয়ে যায় ছবিটি।

রেনু রবি চোপড়া র প্রযোজনায় ছবিটি পরিচালনা করেছেন মুদাসসার আজিজ।

২। পানিপথ

অর্জুন কাপুর এবং কৃতি শ্যানন  রুপালি পর্দায় প্রথম বারের মত একসাথে কাজ করেন এই ছবির মাধ্যমে। তাও আবার অস্কার মনোয়ন পাওয়া পরিচালক আশুতোষ গোয়ারিকর এর ছবি পানিপথ এ । এর আগেও পরিচালক আশুতোষ যোধা আকবর এবং মোহেঞ্জদারো র মত ঐতিহাসিক ছবি পরিচালনা করেছেন।

এই ছবিতে আরো রয়েছেন বিখ্যাত অভিনেতা সঞ্জয় দত্ত। যা এই ছবিটিতে যোগ করেছে অতিরিক্ত স্টার ভ্যালু। যদিও এই যতটুকু প্রত্যাশা করা হয়েছিল সেরকম ব্যবসা করতে পারেনি এখন পর্যন্ত। তবুও এটি মোটামুটি ব্যবসা করেছে বক্স অফিসে। তাই এই সপ্তাহে বক্স অফিসে এটি রয়েছে ২ নম্বরে।

পানিপথ

ছবিটি মুক্তি পেয়েছে ৬ ডিসেম্বর। মুক্তির প্রথম দিনেই ছবিটির আয় ৪.১২ কোটি। তবে উত্তরোত্তর ছবিটির আয় বেড়েছে। তৃতীয় দিনে এর আয় গিয়ে দাঁড়ায় ৭.৭৮ কোটিতে। এখন পর্যন্ত ছবিটির আয় ১৭.৬৮ কোটি। এর থেকে বোঝা যায় ছবিটি দর্শকদের আকৃষ্ট করতে পেরেছে। এবং দিনকে দিন ছবিটির আয় বাড়তে থাকতে পারে।

ছবিটি কার্তিক আরিয়ান এর কমেডি ছবি ‘ পাতি পাত্নি অর ও’ মুক্তির দিন ই মুক্তি পাওয়ায় এর ব্যবসাইয় কিছুটা ভাটা পড়েছে বলে আঁচ করা যাচ্ছে।

এই ছবিটি পানিপথের তৃতীয় যুদ্ধকে কেন্দ্র করে গড়ে উঠেছে। এজন্যই বোধ হয় ছবিটি মহারাষ্ট্র তে খুব ভালো ব্যবসা করলেও  ভারতের উত্তর এবং পূর্ব দিকের অঞ্চলে খুব ভালো ব্যবসা করতে পারেনি।

 ছবিতে বিশেষ ভাবে লক্ষণীয় অর্জুন কাপুরের অসাধারণ অভিনয়। এখানে তিনি তার নিজের গণ্ডি ছেড়ে বের হয়ে এসেছেন এবং কিছু ভালো কাজ করেছেন। তাই দর্শক এবং সমালোচক সবাই ই তার প্রশংসায় পঞ্চমুখ। এছাড়াও এখানে কৃতি এবং সঞ্জয় দত্ত এর অভিনয় ও সবার নজর কেড়েছে।

৩। কমান্ডো

একশন ধাঁচের ছবি কমান্ডো ইতোমধ্যেই দর্শকদের মাঝে অনেক সাড়া ফেলেছে। এই সিরিজেরই ছবি কমান্ডো ৩ মুক্তি পেয়েছে ২৯ নভেম্বর । মুক্তির পাওয়ার পরপরই এটি দর্শকদের মাঝে এক আলোড়ন ফেলে দিয়েছে। মূলত এর প্রধান চরিত্র বিদ্যুৎ জামাওয়াল তার বিভিন্ন একশন দৃশ্যের মাধ্যমে দর্শকদের মন কেড়ে নিয়েছেন।

মুক্তি পাবার প্রথম দিন ই এই ছবিটির বক্স অফিসে আয় ৪.২৫ কোটি। যেটা সেই সপ্তাহের শেষে গিয়ে দাঁড়ায় ১৮.১৫ কোটিতে। তবে এর প্রথম সপ্তাহের ছুটির দিন গুলোতে ভালো থাকলেও পরে তা কমে দাঁড়ায় ৩ থেকে ৩.২৫ কোটিতে। কমান্ডো সিরিজের ছবিগুলোতে এত আয় এর আগে দেখা যায়নি। দ্বিতীয় সপ্তাহ শেষে এখন পর্যন্ত আয় ২৯.২৪ কোটি। ছবিটি বক্স অফিসে রয়েছে ৩ নম্বরে।

কমান্ডো

তবে প্রথম সপ্তাহে আয় কমলেও সংশ্লিষ্টরা ভাবছেন এই ছবিটি প্রায় ৩০ কোটি আয় করতে পারে। যেটা আগের কমান্ডো সিরিজের সব রেকর্ডকে ভেঙ্গে দিবে। এমনটিই বলছেন এই ছবির পরিচালক আদিত্য দত্ত।

এই ছবিটির এত সাফ্যলের পিছনে কিছু কারণ ও আছে। কমান্ডো ৩ এ এবার নতুন কিছু স্টান্ট যোগ করা হয়েছে। পরিচালক বলেছেন এই ছবিতে এবার খুব জটিল এবং হাই অকটেন একশন এর দৃশ্য রয়েছে। এবার ছবির নায়ককে দেখা যাবে লন্ডনের রাস্তায় মোটর বাইক কে তাড়া করতে, বন্দুক যুদ্ধে এবং আরও অনেক দুর্ধর্ষ দৃশ্যে।

ছবিটি পরিচালনা করেছেন আদিত্য দত্ত। ছবিটির প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন বিদ্যুৎ জামাওয়াল, আদাহ শর্মা, আঙ্গিতা ধর, গুলশান দেভাইয়া প্রমুখ। ছবিটির বাজেট ছিল ৩০ কোটি।

অনলাইন নিউজ ডেস্ক/বিজয় টিভি

You might also like