একটা সময় সিডিউল দিতে না পারা নাসরিন এখন বেকার

সোহানুর রহমান সোহান পরিচালিত ‘লাভ’ ছবির মধ্য দিয়ে ১৯৯২ সালে চলচ্চিত্রে যাত্রা করেন অভিনেত্রী নাসরিন আক্তার। নৃত্য সহশিল্পী হিসেবে যাত্রাটা শুরু হলেও দেশের প্রথম সারির অনেক নায়কের বিপরীতেও অভিনয় করেছেন তিনি।

কৌতুক অভিনেতা দিলদারের নায়িকা হিসেবে আকাশছোঁয়া জনপ্রিয়তা পেয়েছেন।

তার দাবি, দীর্ঘ ক্যারিয়ারে পাঁচ শতাধিক চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। এখন তাকে সিনেমা অঙ্গনে খুব একটা দেখা যায় না। কেমন আছেন, কি কাজ করছেন?
অভিনেত্রী বলেন, একদম কাজ নেই। মোস্তাফিজুর রহমান মানিক ভাইয়ের পরিচালনায় ‘আনন্দ অশ্রু’ সিনেমায় কাজ করছেন, যা আর দু-একদিন করলেই পুরোপুরি শেষ হয়ে যাবে। তারপর আর কোনো কাজ নেই। মানে বেকার।

একটা সময় ছিল সিডিউল দেয়া নিয়ে তিনি আতঙ্কে থাকতেন। চারদিকে কাজ আর কাজ। সিডিউল দিতে পারতেন না। কত কথা শুনতে হয়েছে তাঁকে। কতজনের রাগ ভাঙাতে হয়েছে। এখন এমন দিন এলো না খেয়ে থাকার উপক্রম। তার ওপর করোনার যন্ত্রণা যোগ হয়েছে’- বললেন নাসরিন।

তিনি মনে করেন এফডিসির সিনিয়র পরিচালকরা সিনেমায় অনিয়মিত হওয়ার কারণেই তার মতো সিনিয়র শিল্পীরাও কাজ পাচ্ছেন না। এখন নতুন পরিচালকদের সময় যাচ্ছে। প্রচুর কাজ হচ্ছে। কিন্তু এ পরিচালকদের সঙ্গে তার মতো আগেকার শিল্পীদের পরিচয়-জানাশোনা নেই।

অভিনেত্রীর ভাষ্য, ‘তারা নতুনদের সঙ্গে কাজ করতে চান। তাদের সঙ্গে মিলেমিশে নতুন করে ইন্ডাস্ট্রিতে সোনালি দিন ফিরিয়ে আনতে চান। সমস্যা হলো নতুন পরিচালকরা তাদের এড়িয়ে চলে। গুণের চেয়ে গ্ল্যামার আর বন্ধু সম্পর্ককে বেশি গুরুত্ব দেয় তারা।

শিল্পী সমিতি ও আগামীর নির্বাচন প্রসঙ্গ এ অভিনেত্রী বলেন, তাকে কয়েকজন বলছে নির্বাচন করতে। তিনি করবেন না।