এনপিও’কে আরো আধুনিক ও শক্তিশালী সংস্থায় রূপান্তরিত হতে হবে : শিল্পমন্ত্রী

৬৪

শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন এমপি বলেন, স্বল্পোন্নত থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তোরণের ফলে সারা বিশ্বের সাথে প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে হলে, পণ্যের গুণগত মান ও পরিমাণ বৃদ্ধির উপর সর্বাধিক গুরুত্ব প্রদান করতে হবে। এ লক্ষ্যে ন্যাশনাল প্রোডাক্টিভিটি অর্গানাইজেশন (এনপিও)কে আরও আধুনিক ও শক্তিশালী সংস্থায় রূপান্তরিত হতে হবে এবং ভবিষ্যতে এনপিও’র পরিধি আরও বাড়াতে হবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার দক্ষ নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ উন্নত মর্যাদার আসনে অধিষ্টিত হয়েছে। উন্নয়নের এ ধারাকে অব্যাহত রাখতে উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধিকল্পে প্রশিক্ষণের কোনো বিকল্প নেই।

শিল্পমন্ত্রী আরও বলেন, মার্চ মাস আবেগ ও অঙ্গীকারের মাস। এ মাসে আমাদের অঙ্গীকার করতে হবে জাতির পিতার সুযোগ্য কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশে অর্থনৈতিক উন্নয়নের যে গতি এসেছে, সেই ধারা অব্যাহত রাখতে হবে।

জাতীয় উৎপাদনশীলতা পরিষদ (এনপিসি)-এর ১৬তম সভায় সভাপতিত্বকালে শিল্পমন্ত্রী এসব কথা বলেন। এনপিও’র পরিচালক ও পরিষদের সদস্য সচিব নিশ্চিন্ত কুমার পোদ্দারের পরিচালনায় কামাল আহমেদ মজুমদার এমপি এতে সহসভাপতি এবং শিল্পসচিব কে এম আলী আজম সদস্য হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। আজ শিল্প মন্ত্রণালয়ে সম্মেলন কক্ষে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এনপিসি সভার সহসভাপতি কামাল আহমেদ মজুমদার এমপি বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণে সরকারের গৃহিত পদক্ষেপের সাথে জাতীয় উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধি যেমন প্রয়োজন, তেমনি বাংলাদেশ ন্যাশনাল প্রোডাক্টিভিটি মাস্টার প্ল্যান বাস্তবায়নে যুব সমাজকে কারিগরি প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দক্ষ মানব সম্পদে পরিণত করতে হবে। এর জন্য দেশের অর্থনীতিকে স্বনির্ভর ও উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত করার লক্ষ্যে শ্রমিক-মালিকসহ সর্বস্তরের জনগণের দায়িত্বশীল ভূমিকা থাকা প্রয়োজন। তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশ জাতীয় উৎপাদনশীলতা মাস্টার প্ল্যান ২০২১ থেকে ২০৩০ এর প্রস্তাবিত এজেন্ডাসমূহ যথাযথভাবে পালন সংশ্লিষ্টদের অগ্রণীভূমিকা পালন করতে হবে।

সভায় জানানো হয়, বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা কারিকুলামে উৎপাদনশীলতা বিষয়ক কন্টেন্টটি শিক্ষাবর্ষ ২০২২ সালে পাঠ্যপুস্তকের অন্তর্ভুক্তকরণের লক্ষ্যে প্রথম থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত যোগ্যতাভিত্তিক শিক্ষাক্রম প্রণয়নের কাজ চলমান রয়েছে; এনপিও পেশাজীবী কর্মকর্তাদের সক্ষমতা বৃদ্ধি এবং দেশব্যাপী উৎপাদনশীলতা বিষয়ক অবহিতকরণ শীর্ষক প্রকল্পের বাস্তবায়নের অংশ হিসেবে ইতোমধ্যে পাঁচ জেলায় সেমিনার কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়েছে; এবং বাংলাদেশ ন্যাশনাল প্রোডাক্টিভিটি মাস্টার প্ল্যানটি সরকারের অষ্টম পঞ্চ বার্ষিকী পরিকল্পনায় অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে, সে অনুযায়ী সরকারের মিশন ও ভিশন বাস্তবায়নে যুযোপেযোগী পরিকল্পনা প্রণয়নের সাথে সমন্বয় করার লক্ষ্যে এশিয়ান প্রোডাক্টিভিটি অর্গানাইজেশন (এপিও) জাপান হতে বিশেষজ্ঞদের মতামত ও পরামর্শ সেবা গ্রহণের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

সভায় শিল্প, বাণিজ্য, পাট ও বস্ত্র, তথ্য, কৃষি এবং শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়, পরিকল্পনা, জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ, বিদ্যুৎ ও সড়ক বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, এফবিসিসিআই, জাতীয় শ্রমিকলীগ ও নাসিবের প্রেসিডেন্ট, ডিসিসিআই, এমসিসিআই, বিজিএমইএ, বিকেএমইএ, বাংলাদেশ ইঞ্জিনিয়ারিং শিল্প মালিক সমিতি, আইইবি, বাংলাদেশ জুট মিলস্ অ্যাসোসিয়েশন, এপিও সোসাইটি ফর বাংলাদেশ, এনপিও, বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র, বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন সংঘ ও বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিনিধিসহ কমিটির সংশ্লিষ্ট সদস্যরা ভার্চ্যূয়ালি উপস্থিত ছিলেন।

You might also like