করোনাকালীন অভিজ্ঞতার গল্পে পাঁচ নির্মাতা

১৯

করোনাকালীন সময়ে সাধারণ মানুষের জীবনযাত্রা, জীবিকা, সামাজিক অবস্থান, শারীরিক ও মানসিক বির্পযয়ের নতুন অভিজ্ঞতাগুলোই পাঁচটি ভিন্নর্ধমী গল্পের মাধ্যমে তুলে ধরবেন পাচ নির্মাতা।

গল্পগুলোর মধ্যে ‘আড়াই মন স্বপ্ন’ শর্টফিল্মটি পরিচালনা করেছেন ‘জালালের গল্প’ খ্যাত নির্মাতা আবু শাহেদ ইমন। এখানে এই সংকট চলাকালে সমাজের নিম্ন মধ্যবিত্ত মানুষের চরম আর্থিক সংকটকে তুলে ধরেছেন তিনি।

‘ভয়ঙ্কর সুন্দর’ খ্যাত পরিচালক অনিমেষ আইচ মহামারির এই চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় সম্মুখযোদ্ধা ডাক্তারদের বেদনার গল্প নিয়ে নির্মাণ করেছেন সিরিজের আরেকটি শর্টফিল্ম ‘মুখ আসমান’।

আয়নাবাজি খ্যাত নির্মাতা অমিতাভ রেজা চৌধুরীর ‘এসো বসে একসাথে খাই’ শর্টফিল্মটিতে লকডাউনে পরিবারের সদস্যদের মানসিক পরিবর্তনকে তুলে ধরা হবে। এতে দেখা যাবে, এ সময়ে ঢিলেঢালা পারিবারিক বন্ধন একদিকে যেমন মজবুত হয়েছে, তেমনি অতি আপনজনও দূরে চলে গেছে।

‘ডুব সাঁতার’ খ্যাত নির্মাতা নূরুল আলম আতিক। সমাজের ভালো-মন্দ নানা কর্মকাণ্ড এবং পারিবারিক সর্ম্পকগুলো করোনাভাইরাসে প্রভাবিত হওয়ার নানাদিক তুলে ধরে নির্মিত হয়েছে ‘নিষিদ্ধ বাসর’ শর্টফিল্মটি।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তিকে নির্মম মানসিকতার পরিচয় দিয়ে সামাজিকভাবে দূরে সরিয়ে দেয়ার গল্প নিয়ে নির্মিত হয়েছে সিরিজের ‘যাত্রী’ শর্টফিল্মটি। জনপ্রিয় নির্মাতা গিয়াস উদ্দিন সেলিম এটি নির্মাণ করেছেন।

এই পাঁচজন চলচ্চিত্র নির্মাতা প্রায় ৩০ মিনিট দৈর্ঘ্যের এই গল্পগুলো লিখেছেন। তারাই নিজেদের লেখা গল্পের চিত্রনাট্য রচনা ও শর্টফিল্মগুলো পরিচালনা করেছেন। ১ অক্টোবর থেকে বিনজ্-এর প্লাটফর্মে এই সিরিজিটি দেখতে পাবেন দর্শকরা।

নিউজ ডেস্ক/বিজয় টিভি

You might also like