কাবুলে ড্রোন হামলায় মানুষ হত্যার ক্ষতিপূরণ দেবে যুক্তরাষ্ট্র

আফগানিস্তান থেকে মার্কিন বাহিনীর প্রত্যাহারের শেষ সময়ে ভুলবশত মার্কিন ড্রোন হামলায় ৭ শিশুসহ ১০ জনের হত্যার ঘটনায় তাদের স্বজনদের ক্ষতিপূরণ দেয়ার প্রস্তাব দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। তবে ক্ষতিপূরণের অর্থের পরিমান উল্লেখ করা হয়নি।

শুক্রবার এক বিবৃতিতে পেন্টাগন বলেছে, নিহতদের আত্মীয় স্বজন যারা তালেবান শাসিত আফগানিস্তান ত্যাগ করতে চায় তাদের শনাক্ত করার জন্য পেন্টাগন মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের সঙ্গে কাজ করছে।

প্রতিরক্ষা বিভাগের পলিসি বিষয়ক আন্ডার সেক্রেটারি কলিন কাহল এবং আফগানিস্তানে সক্রিয় এইড গ্রুপ নিউট্রেশন অ্যান্ড অ্যাডুকেশন ইন্টারন্যাশনালের প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি স্টিভেন কোয়ানের মধ্যে বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

কাবুল থেকে মার্কিন প্রত্যাহারের সবচেয়ে গোলযোগকালে ২৯ আগস্ট এই সংস্থার কর্মী এজমারাই আহমাদিকে ভুলবশত ইসলামি স্টেটের জঙ্গি হিসেবে চিহ্নিত করে মার্কিন গোয়েন্দারা। মার্কিন ড্রোন থেকে মিসাইল হামলার ৮ ঘন্টা আগে তারা একটি সাদা টয়োটা গাড়ি অনুসরণ করে এবং পরে আইএসআই সন্দেহে মিসাইল হামলা চালায়, এতে ৭ শিশুসহ ১০ জনের মৃত্যু হয়, এদের মধ্যে আহমাদিও ছিলেন।

ইউএস সেন্ট্রাল কমান্ড কমান্ডার জেনারেল কেনেথ ম্যাকেঞ্জি বলেছেন, আমেরিকান গোয়েন্দারা কাবুল বিমান বন্দরের কাছে একটি গাড়ি দেখতে পায়, তারা ধারণা করে আইএস কাবুল বিমান বন্দরে হামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে।

এই ঘটনার তিনদিন আগে কাবুল বিমান বন্দরে বোমা হামলায় বহু লোকের মৃত্যু হয়, এ সময় ১৩ মার্কিন মেরিন সেনা মারা যায়।

কিন্তু গত মাসে যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তারা বুঝতে পারেন এই ড্রোন হামলা ভুল ছিল।

You might also like