কালিয়ায় বসতভিটায় আগুন, পাল্টাপাল্টি অভিযোগ

নড়াইলের কালিয়া উপজেলার দক্ষিন যোগানিয়া গ্রামে ফাতেমা নামে এক গৃহকর্মির বসতভিটায় অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। গত শুক্রবার রাত ৯ টার দিকে এ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। অগ্নিকান্ডে ৭০ টি গুহপালিত হাস-মুরগি, নগদ ১০ হাজার টাকা ও কিছু স্বর্নালংকার ভষ্মীভূত হয়েছে। ফতেমা ঔ গ্রামের মো: মুমিন শেখের স্ত্রী। মুমিন পাশ্ববর্তি ইটভাটা তাসিন ব্রিকস এর ট্রলির ড্রাইভার হিসাবে কাজ করে।

মুমিন অভিযোগ করে বলে, সে বিগত তিন বছর পরিবার নিয়ে ঐ বাড়িতে বসবাস করে আসছে। তবে বসৎবাড়ির পাশে তাসিন ব্রিকস স্থাপিত হবার পর থেকে তার বসৎভিটা উচ্ছেদের পায়তারা করে আসছে ভাটা মালিক পক্ষ। তাকে উচ্ছেদ করতে না পারায় তার বসত ভিটায় আগুন লাগিয়ে দিয়েছে তার প্রতিপক্ষরা বলে তিনি অভিযোগ করেন।

ফাতেমার বাবা যোগানিয়া গ্রামের আতিয়ার শেখ বলেন, তিনি তার মেয়েকে বসবাসের জন্য ঐ স্থানে ১৬ শতক জমি ইকলাম শেখের কাছ থেকে ক্রয় করে দেন। তবে ঐ তাসিন ব্রিকস এর লোকজন বিভিন্ন সময়ে তার মেয়েকে উচ্ছেদ করতে চেষ্টা করে এমনকি বিভিন্ন সময় পরিবারের মেয়েদের নিয়ে বিভিন্ন অপবাদ ও রটানোর বৃথা চেষ্টা করেছে বলে তিনি অভিযোগ করেন।

তবে ঐ সকল অভিযোগ অস্বিকার করে ভিন্ন অভিযোগ এনেছে তাসিন ব্রিকস এর মালিক কাম ম্যানেজার মো: সোহেল মোল্লা। তিনি অভিযোগ করে বলেন, তাসিন ব্রিকস এ বছর ই প্রতিষ্ঠা হয়েছে। তার ইটভাটার কার্যক্রম শুরু হবার পর থেকে ঐ ফাতেমার পরিবারের লোকজন বিভিন্ন ভাবে তার ক্ষতি করে আসছে। বিভিন্ন সময়ে ছোট ছেলে-মেয়েকে দিয়ে ইচ্ছা করে পা দিয়ে মাড়িয়ে তার কাচা ইট ভেঙ্গে ফেলেছে বলে তিনি অভিযোগ করেছেন।

তিনি আরও বলেন, কাচা ইট ভেঙ্গে ফেলার বিষয় নিয়ে নড়াগাতি থানায় বেশ কয়েকবার অভিযোগ ও মিমাংসা করা হয়েছে। তাসিন ব্রিকস এর জন্য ঐ জমিটির ( ফাতেমার বসতভিটা) কোন প্রয়োজন নেই বলে তিনি জানান।

নড়াগাতি থানার এ, এস, আই, মহানন্দ বলেন, পূর্বে ইট ভেঙ্গে ফেলার বিষয়ে অভিযোগ তদন্ত করা হয়েছে, ফাতেমা ছোট একটি ছেলে রয়েছে সে পরর্তিতে আর ভাটার কোন ক্ষতি করবে না বলে তিনি আস্বস্থ করেছে।

নড়াগাতি থানার অফিসার ইনচার্জ মো: আলমগীর কবির বলেন, আগুন লাগার বিষয়ে এখনো কোন অভিযোগ আসে নি, অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নিউজ ডেস্ক / বিজয় টিভি