কাশ্মীরে বাস খাঁদে পড়ে ২২ জনের প্রাণহানি

পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে একটি যাত্রীবাহী বাস খাদে পড়ে নারী-শিশুসহ অন্তত ২২ জনের প্রাণহানি ঘটেছে। আহত হয়েছেন আরও ৮ জন। বুধবার বিকেলে রাজধানী মুজাফফরাবাদের প্রায় ১৬০ কিলোমিটার (৯৫ মাইল) পূর্ব দিকে দুর্গম এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। খবর এএফপি’র।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ৪০ সিটের ওই বাস ৩০ জনের বেশি যাত্রী নিয়ে বালোচের এক মহাকুমা থেকে রাওয়ালপিন্ডি যাচ্ছিল। ৭ কিলোমিটার যাওয়ার পর বাসটি প্রথমে ব্রেক ফেল করে প্রথমে পাহাড়ের গায়ে ধাাক্কা খায়, এরপর গড়িয়ে প্রায় ৫০০ মিটার( ১৬শ’৪০ ফুট) গভীর গিরিখাতে পড়ে যায়।

পালান্দ্রির উপ পুলিশ কমিশনার জানিয়েছেন, দুর্ঘটনায় নিহতদের মধ্যে বেশ কয়েকজন নারী ও শিশু রয়েছে। ঘটনাস্থলে উদ্ধার কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। তবে প্রতিকূল পরিবেশের কারণে উদ্ধারকারীদের বেশ বেগ পেতে হচ্ছে।

স্থানীয় পুলিশ প্রথমে নিহতের সংখ্যা সাতজন বলে জানিয়েছিল। কিন্তু পরে মৃতের সংখ্যা আরও বেড়েছে বলে জানানো হয়। পুঞ্চ জেলার ডিআইজি রাশিদ নাইম খান জানান, ২২ জনের মৃত্যু হয়েছে।

৫ জন আহতকে কোটলি জেলার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এছাড়া তিনি জন আহত ব্যক্তিকে বালোচে ভর্তি করা হয়েছে। এদিকে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষরা জানিয়েছে, আহতদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কা জনক।

পাকিস্তানে মারাত্মক সড়ক দুর্ঘটনা সাধারণ ঘটনা। বিশেষ করে দেশটির গ্রামীণ এলাকায় রাস্তার অবস্থা বেহাল থাকার কারণে প্রায় দুর্ঘটনা ঘটে ।