কুমারখালীতে শিক্ষার্থীদের মাঝে করোনার টিকাদান শুরু

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সের শিক্ষার্থীদের মাঝে কোভিড- ১৯ এর টিকাদান কর্মসূচি শুরু হয়েছে।

রোববার সকালে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের হলরুমে উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) তামান্না তাসনীম কর্মসূচির শুভ উদ্বোধন করেন ।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মো. আকুল উদ্দিনের সভাপতিত্বে এসময় উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. আব্দুর রশিদসহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে টিকা গ্রহণে আগ্রহী শিক্ষার্থীরা সকাল থেকেই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স চত্ত্বরে ভিড় জমায়। এলোমেলো একাধিক লম্বা লাইনে দাঁড়িয়ে টিকাগ্রহণ করে তাঁরা। সেখানে ছিলোনা স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব। এতে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি বাড়ছে বলে মন্তব্য করেন শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পরিসংখ্যান বিভাগ সুত্রে জানা গেছে, উপজেলায় ১২ থেকে ১৭ বছর বয়স পর্যন্ত প্রায় ২২ হাজার ৭০০ শিক্ষার্থীকে দেওয়া হচ্ছে করোনা ভাইরাসের (কোভিড- ১৯) টিকা। প্রথমদিনে কয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৮০০ জন শিক্ষার্থীকে দেওয়া হয় টিকা। পর্যায়ক্রমে ১২ থেকে ১৭ বছরের সকল শিক্ষার্থীকে দেওয়া হবে টিকা।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পরিসংখ্যান বিভাগ সুত্রে আরো জানা গেছে, এপর্যন্ত টিকার জন্য অনলাইনে আবেদন জমা পড়েছে এক লক্ষ ৯০ হাজার ৭৫৩ টি। তন্মধ্যে প্রথম ডোজ সম্পন্ন হয়েছে এক লক্ষ ৭৫ হাজার ৪৩৫ ও দ্বিতীয় ডোজ সম্পন্ন হয়েছে ৮৭ হাজার ৮৮৪ জনের।

এবিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মো. আকুল উদ্দিন বলেন, ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সের শিক্ষার্থীদের মাঝে টিকাদান শুরু হয়েছে। উপজেলায় ২২ হাজার ৭০০ জন শিক্ষার্থীকে টিকা দেওয়া হবে। প্রথমদিনে ৮০০ জনকে টিকা দেওয়া হয়।’