গ্রীষ্মের দাবদাহে সারাদেশে বেড়েছে গরমের প্রকোপ

গ্রীষ্মের প্রচন্ড দাবদাহ আর কাটফাটা রোদে অতিষ্ট জনজীবন। কয়েক দিনের অনাবৃষ্টির ফলে বেড়েছে রাজধানীর তাপমাত্রা। অসহ্য এই গরমে সবচেয়ে বেশি কষ্ট পাচ্ছে ছিন্নমূল ও শ্রমজীবী মানুষেরা। বাধাগ্রস্থ হচ্ছে রাজধানীবাসীর দৈনন্দিন জনজীবন।

গরমের তীব্রতায় ভীড় বাড়ছে ফুটপাতের শরবত আর আখের রসের দোকানগুলোতে। তৃষ্ণামেটাতে এসব অস্বাস্থ্যকর পানীয় পান করছেন সাধারণ মানুষ।

অস্বাস্থ্যকর পানীয় পান
অস্বাস্থ্যকর পানীয় পান

এদিকে, তীব্রগরমে বাড়ছে ডায়রিয়া, আমাশয়সহ পানিবাহিত বিভিন্ন রোগের প্রকোপ। মহাখালি কলেরা হাসপাতালে দৈনিক রোগী ভর্তি হচ্ছেন ৭০০ থেকে ৮০০ জন।

গেলো বছরের তুলনায় এ বছর হাসপাতালগুলোতে রোগীর সংখ্যা প্রায় এক চতুর্থাংশ বেড়েছে। কর্তব্যরত চিকিৎসকের মতে শুধুমাত্র দূষিত পানি ব্যাবহার আর অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে তৈরী খাবার থেকেই ছড়াচ্ছে এসব রোগ।

তীব্রগরমে বাড়ছে ডায়রিয়া, আমাশয়সহ পানিবাহিত বিভিন্ন রোগের প্রকোপ
তীব্রগরমে বাড়ছে ডায়রিয়া, আমাশয়সহ পানিবাহিত বিভিন্ন রোগের প্রকোপ

গেলো বছরের তুলনায় এ বছর গরমের প্রভাব অনেকটা বেশি। বাতাসে জ্বলীয় বাষ্পের পারিমান বেশি থাকায় এ মাসের শেষের দিকে বা পরের মাসের মাসের শুরুতে গরমের প্রকোপ আরো বাড়বে বলে মনে করছে আবহাওয়া অধিদফতর।

গরমে অস্বাস্থ্যকর ও রাস্তার পাশের খোলা খাবার গ্রহণ থেকে বিরত থাকার পরামর্শ বিশেষজ্ঞদের।

 

 

নিউজ ডেস্ক / বিজয় টিভি