চলচ্চিত্রের সোনালী দিন ফিরে আসবে বলে তথ্যমন্ত্রীর প্রত্যাশা

সম্ভাব্য স্বল্প সময়ের মধ্যে দেশের চলচ্চিত্র শিল্প তার সোনালী যুগ ফিরে আসা প্রত্যক্ষ করবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। কারণ সরকার এ শিল্পের আধুনিকায়নে বিভিন্ন পদক্ষেপ বাস্তবায়ন করছে।

গতকাল (বৃহস্পতিবার) সন্ধ্যায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে একটি চলচ্চিত্র উৎসবের সমাপনী অনুষ্ঠানে ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ‘আমি বিশ্বাস করি আগামী দু’বছরের মধ্যে দেশের চলচ্চিত্র শিল্পের পুরো দৃশ্যপট পাল্টে যাবে এবং এ শিল্পে আবার সোনালী দিন ফিরে আসবে।’ ক্যাম্পাসের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রে (টিএসসি) ঢাকা ইউনিভার্সিটি ফিল্ম সোসাইটি (ডিইউএফএস) এ উৎসবের আয়োজন করে।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, দেশের চলচ্চিত্র শিল্প ইতোমধ্যে বন্ধ্যাত্ব কাটিয়ে ওঠে মানসম্পন্ন চলচ্চিত্র নির্মাণ করছে। বর্তমানে বেশকিছু ছবি বিপুলসংখ্যক দর্শককে আকর্ষণ করছে। এক সময় এসব দর্শক সিনেমা হল থেকে নিজেদের দূরে সরিয়ে নিয়েছিল।

মন্ত্রী বলেন, দেশে কিছু সিঙ্গেল স্ক্রিন সিনেমা হল বন্ধ হলেও আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্বলিত সিনেপ্লেক্সের সংখ্যা ক্রমান্বয়ে বৃদ্ধি পাচ্ছে। তিনি বলেন, রাজধানীতে ৪টি এবং চট্টগ্রামে ২টি সিনেপ্লেক্স হল রয়েছে। আগামী কয়েক বছরের মধ্যে আরো ৪টি সিনেপ্লেক্স হল নির্মিত হবে।

এ উৎসব আয়োজনের জন্য তিনি ডিইউএফএসকে ধন্যবাদ জানান। তিনি বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করেন। ৫ দিনের এ উৎসবে ২২টি চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হয়। এর মধ্যে ১৯টি পূর্ণদৈর্ঘ্য এবং ৩টি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মো. আখতারুজ্জামান, চলচ্চিত্র পরিচালক সৈয়দ সালাউদ্দিন জাকি, ডিইউএফএস সভাপতি ফেরদৌস খান নির্ঝর এবং সাধারণ সম্পাদক বিএম জোগলি রহমত উপস্থিত ছিলেন।

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে ২০০০ সাল থেকে ডিইউএফএস প্রতিবছর ‘সুস্থ চলচ্চিত্র, সুস্থ দর্শক’ শ্লোগান নিয়ে উৎসব আয়োজন করে আসছে। (সুত্র: বাসস)

অনলাইন নিউজ ডেস্ক/বিজয় টিভি