চীনের আকাশে উড়বে কৃতিম চাঁদ

চীনের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ একটি শহরে স্ট্রিট ল্যাম্পের বিকল্প হিসেবে কৃত্রিম এক চাঁদ তৈরির ঘোষণা দিয়েছে দেশটি।

চীনের দক্ষিণ-পশ্চিমের সিচুয়ান প্রদেশে অবস্থিত চেংডু শহরের কর্তৃপক্ষ জানায়, তারা ২০২০ সাল নাগাদ একটি কৃত্রিম উপগ্রহ উৎক্ষেপণের পরিকল্পনা করেছে। এই উপগ্রহ রাত্রে শহরটিতে আলো ফেলবে এবং এতই উজ্জ্বল হবে যে এ শহরে আর স্ট্রিট ল্যাম্প দরকার হবে না।ওই উপগ্রহের শরীরে বিশেষ এক ধরনের প্রলেপ দেওয়া থাকবে যাতে তা সূর্যের আলো প্রতিফলন করে চেংডু শহরে ফেলতে পারে।

চেংডু শহরের অ্যারোস্পেস সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি মাইক্রোইলেকট্রনিক সিস্টেমস রিসার্চ ইন্সটিটিউটের চেয়ারম্যান উ চুনফেং জানান, আসল চাঁদের তুলনায় অন্তত আটগুণ বেশি আলো উৎপাদন করবে তার পরিকল্পিত চাঁদ। তবে এই প্রকল্পে খরচ কেমন হবে সে ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করেননি তিনি।

গবেষকরা হুঁশিয়ারি দিয়েছেন, কৃত্রিম এই আলো শহরটির বন্যপ্রাণীদের ক্ষতি করতে পারে। তবে আরেক কর্মকর্তা, কাং ওয়েইমিন দাবি করেন, এই আলো বেশি তীব্র হবে না, তাই বন্যপ্রাণীদের কোনো ক্ষতি হবে না।

১৯৯৯ সালে একই ধরনের এক প্রকল্প হাতে নিয়েছিল রাশিয়ার গবেষকরা। তারা পৃথিবীর কক্ষপথে আয়না পাঠানোর কথা ভাবছিলেন, যাতে সাইবেরিয়ার কিছু শহর আলোকিত হয়। বৈদ্যুতিক বাতির তুলনায় তা অনেক সস্তা হবে বলে তারা আশা করেছিল।

রাশিয়ার ওই পরিকল্পনার মূল অংশ ছিল যেনামিয়া টু নামের একটি উপগ্রহ। এতে ২৫ মিটার লম্বা এক আয়না ছিল, যা তিন মাইল চওড়া ভূমি আলোকিত করতে পারত। কিন্তু কম সময়ের মাঝেই মহাশূন্যে তা বিধ্বস্ত হয়ে যায়।

নিউজ ডেস্ক / বিজয় টিভি