চুরি যাওয়ার ৭ দিন পর শিশু তাইয়্যেবা উদ্ধার

৩৬

নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে প্রতারনা করে তাইয়্যেবা নামে দুই মাস বয়সী শিশুকন্যা চুরির ৭দিন পর বড়াইগ্রাম থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ।

এ ঘটনায় শাকিলা নামে একজনকে গ্রেফতার করা হয়। গতকাল বুধবার নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলার তিরোইল গ্রামের একটি বাড়ী থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করার বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেন পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা।

পরে আজ বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১ টায় গুরুদাসপুর থানায় প্রেস বিফ্রিংয়ের মাধ্যমে বিস্তারিত সাংবাদিকদের জানানো হয়। গ্রেফতারকৃত শাকিলা বড়াইগ্রাম উপজেলার তিরোইল গ্রামের সাইদুল ইসলামের স্ত্রী।

বুধবার সকালে সীমা খাতুন ঠান্ডাজনিত সমস্যার কারণে তার দুই মাসের শিশুকন্যা তাইবাকে সাথে নিয়ে গুরুদাসপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ডাক্তার দেখানোর জন্য আসেন। এ সময় বহির্বিভাগে লাইনে অনেক ভিড় থাকায় পাশে থাকা অজ্ঞাত বোরকা পড়া এক মহিলা সীমা খাতুনকে আপা বলে সম্মোধন করে বাচ্চাটিকে তার কোলে দিয়ে ডাক্তার দেখাতে বলে।

এ সময় সীমা সরল বিশ্বাসে তার শিশুকন্যাকে ঐ মহিলার কাছে দিয়ে ডাক্তার দেখানোর জন্য যান। কিছু সময় পর সীমা খাতুন ফিরে এসে দেখেন অজ্ঞাত মহিলাসহ শিশুকন্যা তাইবা সেখানে নেই। পরে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বিভিন্ন স্থানে হন্তদন্ত হয়ে খোঁজাখুজি শুরু করেন তিনি।

খোঁজাখুঁজি করে না পাওয়া গেলে বিষিয়টি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও পুলিশকে অবহিত করা হয়।

ঘটনার পর পুলিশ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে এবং বিভিন্ন স্থানে চেকপোষ্টসহ অভিযানে নেমে শিশুকন্যাকে উদ্ধারের জন্য অভিযান শুরু করে। অভিযানের এক পর্যায়ে নাটোর জেলার বড়াইগ্রাম উপজেলার তিরোইল গ্রামের একটি বাড়ী থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়।

You might also like