চ্যাম্পিয়ন্স লিগ: গিরুদের চার গোলে সেভিয়াকে বিধ্বস্ত করে শীর্ষে উঠে এলো চেলসি

৫২

ফরাসি তারকা অলিভার গিরুদের চার গোলে কাল সেভিয়াকে ৪-০ ব্যবধানে পরাজিত করে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ই-গ্রুপের শীর্ষে উঠে এসেছে উজ্জীবিত চেলসি।

৩৪ বছর বয়সী এই স্ট্রাইকার সবচেয়ে বেশী বয়সী খেলোয়াড় হিসেবে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে হ্যাটট্রিক করার বিরল কৃতিত্ব অর্জণ করলেন। এর আগে এই রেকর্ডটি ধরে রেখেছিলেন হাঙ্গেরিয়ান সাবেক তারকা ফেরেং পুসকাস। ১৯৬৫ সালে রিয়াল মাদ্রিদের জার্সি গায়ে ফেয়েনুর্ডের বিপক্ষে পুসকাস সবচেয়ে বেশী বয়সী খেলোয়াড় হিসেবে হ্যাটট্রিক করেছিলেন। এছাড়াও পাঁচ বছর আগে মালমোর বিপক্ষে ক্রিস্টিয়ানো রোনাল্ডো চ্যাম্পিয়ন্স লিগের এক ম্যাচে চার গোল করার পর দ্বিতীয় খেলোয়াড় হিসেবে গিরুদ এই কৃতিত্ব দেখালেন।

চেলসি ম্যানেজার ফ্রাংক ল্যাম্পার্ড বলেছেন, ‘এই মাঠে খেলা সব সময়ই কঠিন। অলিভারের অসাধারন একক দক্ষতায় আজ কঠিন কাজটিও সহজ হয়ে গেছে। আমরা সত্যিই তাকে নিয়ে দারুন আনন্দিত।’

ম্যাচ শুরুর আগে অবশ্য উভয় দলই শেষ ১৬ নিশ্চিত করে ফেলেছিল। বাকি ছিল শুধু আনুষ্ঠানিকতা ও গ্রপের শীর্ষ স্থান নিয়ে লড়াই। মূল একাদশে কাল বিস্ময়করভাবেই সুযোগ পেয়েছিলেন গিরুদ। বাম পা, ডান পা ও মাথার সাহায্যে গোল করে তিনি চেলসিকে শুধুমাত্র বড় জয়ই না, শীর্ষস্থানও উপহার দিয়েছেন। এছাড়া একটি গোল করেছেন পেনাল্টি থেকেও।

ম্যাচ শেষে উচ্ছসিত গিরুদ বলেছেন, ‘আমি জানতাম না এই ধরনের হ্যাটট্রিকেও রেকর্ড করা যায়। দুই বছর আগে ডায়নামো কিয়েভের বিপক্ষে ইউরোপা লিগে হ্যাটট্রিক করেছিলাম। তবে এবারের হ্যাটট্রিকটা সত্যিই বিশেষ কিছু। সব সময় এভাবেই নিজেকে প্রমানের স্বপ্ন দেখি। দলের প্রয়োজনে দারুন এক পারফরমেন্স নিয়ে ম্যাচ শেষ করে বাড়ি ফেরা। ক্লাবের ইতিহাসের অংশ হতে পারাটা সবস ময়ই আনন্দের। চার গোল করতে পারার থেকেও দলের জয়ে ভূমিকা রাখতে পেরে আমি বেশী খুশী।’

You might also like