জাপানে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও জাতীয় দিবস উদযাপিত

৫৭

জাপানের টোকিওতে বাংলাদেশ দূতাবাসে আজ স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও জাতীয় দিবস উদযাপন করা হয়। জাপানে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত শাহাবুদ্দিন আহমদ দূতাবাসের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সাথে নিয়ে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান।

দিবসটি উপলক্ষ্যে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী এবং পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বাণী পাঠ করা হয়। ভার্চুয়ালি অনুষ্ঠানের শুরুতে রাষ্ট্রদূত গভীর শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তাঁর পরিবারের সদস্য, জাতীয় চার নেতা, ত্রিশ লাখ শহিদ ও সম্ভ্রম হারানো দুই লাখ মা-বোনদের।

রাষ্ট্রদূত বলেন, বাংলাদেশ আজ অপ্রতিরোধ্য গতিতে এগিয়ে চলেছে, প্রধানমন্ত্রীর দূরদর্শী নেতৃত্বে আমরা করোনা মহামারির ক্ষতিকর প্রভাব কাটিয়ে কাঙ্ক্ষিত প্রবৃদ্ধি অর্জন করেছি। তিনি আরো বলেন, স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর এই মাহেন্দ্রক্ষণে আমরা জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন করছি।

পরে স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, জাপানের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী ওয়াশিও এইচিরো, এবং জাপান-বাংলাদেশ পার্লামেন্টারি ফ্রেন্ডশিপ লীগের প্রেসিডেন্ট তারো আসো প্রদত্ত শুভেচ্ছা বার্তার ভিডিও প্রদর্শন করা হয়। জাপানে নিযুক্ত ভারতের রাষ্ট্রদূত সঞ্জয় কুমার ভারমা, জাপান ইন্টারন্যাশনাল কোপারেশন এজেন্সি (জাইকা)র সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট কিইচিরো নাকাযাওয়া, জাপানের ইকোনমি, ট্রেড এন্ড ইন্ডাস্ট্রি মন্ত্রণালয়ের ডাইরেক্টর নোরিইউশি ফুকুওকা, জাপান বাংলাদেশ সোসাইটির প্রেসিডেন্ট সাবেক রাষ্ট্রদূত মাসাতো ওয়াতানাবে এবং প্রবাসী বাংলাদেশের প্রতিনিধি হিসেবে মঞ্জুরুল হক বক্তব্য প্রদান করেন।

বক্তাগণ বাংলাদেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতির প্রশংসা করেন এবং স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষ্যে বাংলাদেশের জনগণকে শুভেচ্ছা জানান।

You might also like