জেমস বন্ডের অতিথি হবেন প্রিন্স হ্যারি ও মেগান

০০৭… এ তিন অক্ষর দেখলেই মনে ভেসে ওঠে ‘জেমস বন্ড’র ছবি। সেই ১৯৬২ সাল থেকে শুরু হওয়া জেমস বন্ড চলচ্চিত্র সিরিজটি দুনিয়ার সবচেয়ে বড় ও জনপ্রিয় সিরিজগুলোর একটি।

এ সিরিজের টাইটেল সংলাপ ‘মাই নেম ইজ বন্ড- জেমস বন্ড!’ এই বাক্যটির সঙ্গে পরিচিত নন এমন কাউকে খুঁজে পাওয়া দুঃসাধ্য। এখন পর্যন্ত এ সিরিজের ২৪টি ছবি মুক্তি পেয়েছে। চলতি বছর মুক্তি পেতে যাচ্ছে এ সিরিজের ২৫তম সিনেমা ‘নো টাইম টু ডাই’।

জেমস বন্ড’ সিরিজের শেষ কোথায়? এ প্রশ্নের জবাব আপতত না থাকলেও বন্ড চরিত্রে আর দেখা যাবে না ড্যানিয়েল ক্রেগকে, এটা নিশ্চিত। মুক্তিপ্রতীক্ষিত জেমস বন্ড সিরিজের নতুন কিস্তি ‘নো টাইম টু ডাই’ দিয়েই ইতি টানতে চলেছেন এ তারকা। এটি ক্রেগের বন্ড সিরিজের পঞ্চম ছবি।

মুক্তি পেয়েছে এ ছবির ট্রেলার। ট্রেলারে মূল চরিত্রকে নানান রূপে দেখার পর ছবিটি দেখার জন্য মুখিয়ে আছেন জেমস ভক্তরা। প্রকাশিত হওয়া ট্রেলারে, ‘বোহিমিয়ান র‍্যাপসোডি’র জন্য অস্কারজয়ী রামি মালিককে দেখা যায় ভিলেন চরিত্রে। আছেন ‘ক্যাপ্টেন মার্ভেল’ তারকা লাশানা লিঞ্চ। ‘নাইভস আউট’ থেকে আনা ডে আরমাস।

এই ছবিটি যুক্তরাজ্যে মুক্তি পাবে ১২ নভেম্বর। আর যুক্তরাষ্ট্রে ২০ নভেম্বর। মজার ব্যাপার হচ্ছে, যুক্তরাজ্যে ছবিটির প্রিমিয়ারে, ‘লন্ডন লাঞ্চ’–এ অংশ নেবেন ডিউক অ্যান্ড ডাচেস অব কেমব্রিজ—প্রিন্স উইলিয়ামস ও কেট মিডলটন। অন্যদিকে প্রিন্স হ্যারি ও মেগান মার্কেল যাবেন নিউইয়র্কের লস অ্যাঞ্জেলেসের প্রিমিয়ারে।

চলতি বছরে এপ্রিলে নো টাইম টু ডাই মুক্তি পাবার কথা থাকলেও করোনার কারণে তা পিছিয়ে যায়। অন্যদিকে চলতি বছরের জানুয়ারিতেই প্রিন্স হ্যারি ও তাঁর স্ত্রী মেগান মার্কেল আকস্মিক এক ঘোষণায় রাজকীয় দায়িত্ব ছেড়ে দেন।

এতে ব্রিটিশ রাজপরিবারে বেশ বড় ধরণের একটি টানাপোড়েনের সৃষ্টি হয়। মেগানের স্বাধীনচেতা জীবন যাপনের ইচ্ছা এবং রাজপরিবারের ঐতিহ্যের সাথে দ্বন্দ্বই কেট আর মেগানের মধ্যে দূরত্ব সৃষ্টি করেছে। তাই এমনটাও আশঙ্কা করা হয়েছে যে দুই ভাই ও তাঁদের স্ত্রীদের মানসিক দ্বন্দ্বের কারণে ডিউক অ্যান্ড ডাচেস অব কেমব্রিজ তারকাবহুল ওই অনুষ্ঠানে না-ও অংশ নিতে পারেন।