ডলু নদী থেকে বেপরোয়া বালু উত্তোলন; ভাঙনে বিলীন শত শত ঘরবাড়ি

দক্ষিণ চট্টগ্রামের সাতকানিয়া উপজেলার, নলুয়া ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড এলাকার ডলু নদী থেকে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে ক্রমাগত বালু উত্তোলনের ফলে, বিগত ২ বছরে ডলুর ভাঙনে শত শত বসতঘর, কবরস্থান, শ্মশান ও ফসলি জমি বিলীন হয়ে গেছে নদীগর্ভে। হুমকির মুখে রয়েছে নদীর পশ্চিম তীরে স্থাপিত নলুয়া-আমিলাইশ ইউনিয়নের সংযোগ সেতুটি।

স্থানীয়রা সরকারিভাবে নদীর বালুমহাল ইজারার মাধ্যমে বৈধভাবে বালু উত্তোলনের দাবি করলেও ইজারার শর্ত ভঙ্গ করে সেতুর নিচ থেকে এবং জনবসতি, ফসলি জমি ও কবরস্থানের পাশ ঘেঁষে নির্বিচারে বালু উত্তোলন করছে একটি সিন্ডিকেট। ফলে, বসতভিটা হারিয়ে খোলা আকাশের নিচে মানবেতর দিনযাপন করছে অনেকে।

এ বিষয়ে স্থানীয় ইউপি সদস্য কাজী মোহাম্মদ ইলিয়াস বলেন, ইজারার কার্যাদেশে সেতু এলাকা থেকে ১ হাজার ফুট দূরে এবং জনবসতি ও ফসলি জমি এলাকা থেকে বালু উত্তোলন নিষেধ থাকলেও উক্ত সিন্ডিকেট তা মানছে না। তাই এ ব্যাপারে সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান তিনি।

এদিকে, যোগাযোগ করা হলে সাতকানিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফাতেমা-তুজ-জোহরা বলেন, ইজাদারদের কার্যাদেশ অনুযায়ী জায়গা নির্ধারণ করে দেয়া হয়েছে। এর বাইরে গিয়ে কেউ বালু উত্তোলন করলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অবৈধভাবে এই বালু উত্তোলন বন্ধ না হওয়ায় একদিকে যেমন ফসলি জমি, বসতভিটাসহ সবর্স্ব হারাচ্ছে অসহায় লোকজন অন্যদিকে সরকার হারাচ্ছে কোটি কোটি টাকার রাজস্ব। তাই এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি সচেতন মহলের।

You might also like