তিন দশকের খরা কাটিয়ে প্রিমিয়র লিগ জিতল লিভারপুল

৩০ বছরের খরা কাটিয়ে ইংলিশ প্রিমিয়র লিগ জিতল লিভারপুল। লিগ জয় একপ্রকার নিশ্চিত ছিলোই। বুধবার ক্রিস্টাল প্যালেসকে হারানোর পর বৃহস্পতিবার চেলসি-ম্যান সিটি ম্যাচের দিকে তাকিয়েছিল রেডসরা।

সিটি পদস্খলন মানেই খেতাব নিশ্চিত ছিল লিভারপুলের। হলোও তাই। এদিন চেলসির কাছে ম্যাঞ্চেস্টার সিটি ২-১ গোলে হারতেই প্রিমিয়র লিগ খেতাব নিশ্চিত হয়ে গেল ক্লপের ছেলেদের। ২০০০-০১ ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের রেকর্ড ভেঙে ৭ ম্যাচ বাকি থাকতে লিগ জিতে নজির গড়ল লিভারপুল।

গত মার্চে লকডাউনের জেরে প্রিমিয়র লিগ স্হগিত হওয়ার সময় দ্বিতীয়স্হানে থাকা ম্যান সিটির সঙ্গে নিরাপদ ২৫ পয়েন্টের ব্যবধান তৈরি করে নিয়েছিল লিভারপুল। অপেক্ষা ছিল লিগ পুনরায় চালু হওয়ার। লকডাউন পরবর্তী লিগের প্রথম দু’ম্যাচে সিটি জয় তুলে নেয়। অন্যদিকে এভার্টনের বিরুদ্ধে প্রথম ম্যাচ ড্র করায় সালাহদের অপেক্ষা খানিকটা দীর্ঘায়িত হয়। কিন্তু বুধবার রাতে ক্রিস্টাল প্যালেসের বিরুদ্ধে বড় জয় ফের চলতি সপ্তাহেই লিভারপুলের লিগ জয়ের সম্ভাবনা উসকে দেয়। সেকারণেই এদিন চেলসির বিরুদ্ধে সিটির ফলাফলের দিকে তাকিয়ে ছিল তারা।

আর চেলসির বিরুদ্ধে সিটি হারতেই চূড়ান্ত হয়ে যায় ২০১৯-২০ ইংলিশ প্রিমিয়র লিগের ভাগ্য। বাকি সাত ম্যাচের প্রত্যেকটিতে জিতলেও আর কোনওভাবে লিভারপুলের ম্যাজিক ফিগার (৮৬) ছোঁয়া সম্ভব না দ্বিতীয়স্হানে থাকা ম্যান সিটির পক্ষে।

৩১ ম্যাচে ৮৬ পয়েন্ট নিয়ে তাই চ্যাম্পিয়ন হয়ে গেল লিভারপুল। দ্বিতীয়স্হানে থাকা ম্যান সিটির সংগ্রহে এখন ৩১ ম্যাচে ৬৩ পয়েন্ট।

১৮ বছর আগে পাঁচ ম্যাচ বাকি থাকতে খেতাব মুঠোয় পুড়েছিল স্যার ফার্গুসনের ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড। সেই রেকর্ড ভেঙে নয়া রেকর্ড গড়ল জুর্গেন ক্লপের লিভারপুল। ৭ ম্যাচ বাকি থাকতেই খেতাব পকেটে পুড়ে নিল তাঁরা। সূত্র: কলকাতা ২৪