তুরাগে ট্রলারডুবি: মা-মেয়ের লাশ উদ্ধার, মৃত্যু বেড়ে ৭

ঢাকার গাবতলী সংলগ্ন তুরাগ নদে ডুবে যাওয়া ট্রলারের যাত্রী আরও এক নারী এবং তার মেয়ের মৃতদেহ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশ।

দুদিন আগের ওই দুর্ঘটনায় এ নিয়ে মোট ৭ জনের লাশ উদ্ধার হল বলে জানান, নৌ পুলিশের আমিনবাজার থানার ওসি আলমগীর শেখ।

ফায়ার সার্ভিস নিয়ন্ত্রণ কক্ষের কর্মকর্তা রাশেদ বিন খালিদ জানান, গত শনিবারের ওই দুর্ঘটনার পর ৫ জনের মৃতদেহ পাওয়া গেলেও দুজন নিখোঁজ ছিল।

আজ সোমবার বেলা ১১টার দিকে আমিন বাজার সেতুর নিচে ভেসে ওঠে রূপায়ন বেগমের মরদেহ। অন্যদিকে মুন্সিগঞ্জের মুক্তার পুর থেকে ৩ বছর বয়সী জেসমিনের মৃতদেহ উদ্ধার করে নৌ পুলিশ।

উল্লেখ্য, শনিবার সকালে ১৮ জন যাত্রী নিয়ে একটি ট্রলার তুরাগ পার হয়ে গাবতলীর দিকে যাচ্ছিলেন। এসময় ট্রলারটি একটি বালুবাহী নৌযানের নিচে চলে যায় এবং ডুবে যায়।

দিনভর অভিযানে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা সেদিন মোট ৫ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করেন।

ওই ৫ জনের মধ্যে রূপায়ন বেগমের ছেলে আরমান , রূপায়নের বোন শিউলি বেগম এবং শিউলির ছেলে ইমরানও ছিল।

ওই দুর্ঘটনার পর সাভার থানায় একটি মামলা করা হয়েছে।