ধর্মঘটে গণপরিবহন শূন্য ঢাকা, বিপাকে যাত্রীরা

আজ সপ্তাহের প্রথম দিন। সরকারি অফিস বন্ধ থাকলেও খোলা রয়েছে অনেক বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান। কর্মস্থলে যেতে সকাল থেকেই সড়কে মানুষের ভিড়। তবে পরিবহন ধর্মঘটের জন্য সড়কে নেই গণপরিবহন। এতে বিপাকে পড়েছেন ঘট থেকে বের হওয়া মানুষজন।

শনিবার (৬ নভেম্বর) সকাল থেকেই রাজধানীর রাজপথে ব্যক্তিগত গাড়ি, রিকশা, সিএনজিচালিত অটোরিকশা ও মোটরসাইকেলের দখলে রয়েছে। মাঝে মাঝে দেখা মিলছে বিআরসিটির দু-একটি বাস, তাতেও যাত্রীতে ঠাসা।

হঠাৎ বাস চলাচল বন্ধ করে দেওয়ায় বিপাকে পড়েছেন সাধারণ মানুষ। নানা কাজে বাইরে বেরিয়ে চরম ভোগান্তিতে পড়ছেন অনেকে। যানবাহনে গুনতে হচ্ছে বাড়তি ভাড়া। এদিকে রোববারের আগে ধর্মঘট প্রত্যাহারের সুযোগ নেই বলে জানিয়েছে পরিবহন মালিক সমিতি। বারবার জনভোগান্তির কর্মসূচি দেওয়ায় সমালোচনা করেছেন যোগাযোগ বিশেষজ্ঞ ড. এম শামসুল হক।

এদিকে পরিবহন ধর্মঘটের সুযোগে মাত্রাতিরিক্ত ভাড়া নিচ্ছে সিএনজি ও রিকশা চালকরা। ধর্মঘটের আগে যা ভাড়া ছিল এখন তা বেড়ে কয়েক গুণ বেশি।