নারী উদ্যোক্তাদেরকে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে বিসিকে প্লট দেওয়া হবে : শিল্পমন্ত্রী

৪২

শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন বলেন, নারী উদ্যোক্তাদেরকে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে বিসিকে প্লট দেওয়া হবে। শিল্প মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন বিসিক ও এসএমই ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে নারী উদ্যোক্তাদের উৎপাদিত পণ্যের বাজারকরণের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। নারী শ্রমিকদের আন্তরিক ও স্বত:স্ফূর্ত অংশগ্রহণের জন্য বাংলাদেশ তৈরি পোশাকখাতে দ্রুত অগ্রসর হয়েছে।

তিনি বলেন, দেশ উন্নয়নশীল হওয়ায় আমাদের সুযোগ সুবিধা কমেনি বরং বেড়েছে, তবে আমাদের দায়িত্বও বেড়েছে। এ ধারা অব্যাহত রাখতে শিল্পায়নে নারীদের অংশগ্রহণ আরো বাড়াতে হবে। তিনি আরও বলেন, বিশ্ব অর্থনীতি টিকে থাকতে হলে নারী উদ্যোক্তাদেরকে নতুন নতুন রপ্তানিমুখী পণ্য উৎপাদনে এগিয়ে আসতে হবে।

আন্তর্জাতিক নারী দিবস ২০২১ উদযাপন উপলক্ষ্যে এসএমই ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে আয়োজিত ‘মুজিববর্ষে নারী উদ্যোক্তাদের অগ্রগতি ও চ্যালেঞ্জ’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিল্পমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

আজ রোববার পর্যটন ভবন মিলনায়তন, পশ্চিম আগারগাঁও, শেরেবাংলা নগর, ঢাকায় এ সেমিনার আয়োজন করা হয়। এসএমই ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মো: মাসুদুর রহমানের সভাপতিত্বে এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার এমপি এবং শিল্প সচিব কে এম আলী আজম।

এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন এসএমই ফাউন্ডেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. মো: মফিজুর রহমান। সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বিআইডিএস এর সিনিয়র রিসার্স ফোলো ড. নাজনীন আহমেদ। মূল প্রবন্ধের উপর পর্যালোচনা করেন জায়িতা ফাউন্ডেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মিসেস আফরোজা খান এবং চট্টগ্রাম উইমেন চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি মিসেস মনোয়ারা হাকিম আলী। সেমিনারে উন্মুক্ত আলোচনা সঞ্চালনা করেন এসএমই ফাউন্ডেশনের মহাব্যবস্থাপক মিসেস ফরজানা খান।

শিল্পমন্ত্রী বলেন, ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে শুধু মুনাফার কথা ভাবলেই হবে না, দেশ প্রেম ও মানবিকতা থাকবে হবে। নতুন নারী উদ্যোক্তাসহ শিল্পখাতে নারীদের সহজ শর্তে ঋণ প্রদানে ব্যাংক ও আথিক প্রতিষ্ঠানের মালিকদের আহবান জানান। তিনি আরও বলেন, আমাদের দেশের নারীরা তাদের মেধা ও দক্ষতা দিয়ে সব কিছুতেই এগিয়ে রয়েছে এবং নারীরা তাদের যোগ্যতা প্রমাণ করেছেন। ১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলন থেকে শুরু করে এখন পর্যন্ত প্রতিটি আন্দোলন, সংগ্রাম, সমাজ সংস্কার, অর্থনৈতিক উন্নয়নসহ সর্বক্ষেত্রে নারীর অংশগ্রহণ ছিল, এখনও আছে।

You might also like