প্রতিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বিএনসিসিকে সম্পৃক্ত করতে হবে : সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী

৬৮

সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ বলেছেন, বাংলাদেশ ন্যাশনাল ক্যাডেট কোর বিএনসিসি- এর ক্যাডেটরা জ্ঞান, শৃঙ্খলা ও স্বেচ্ছাসেবাকে মূলমন্ত্র হিসাবে ধারণ করে মানবিক গুণাবলীর চর্চা করে নিজেদের পরিপূর্ণ মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে সর্বদা সচেষ্ট থাকেন। তাই প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বিএনসিসিকে সম্পৃক্ত করতে হবে।

প্রতিমন্ত্রী আজ (২৯ ডিসেম্বর) রাজধানীর বিএনসিসি সদর দপ্তরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষ্যে বিএনসিসি আয়োজিত ‘বঙ্গবন্ধু কর্নার’ উদ্বোধন, ‘চেতনায় বঙ্গবন্ধু’ শীর্ষক ম্যাগাজিনের মোড়ক উন্মোচন, পুরস্কার বিতরণ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, বর্তমানে যুবসমাজ মাদকের ভয়াল ছোবলে জর্জরিত। তরুণ ও যুবসমাজকে এ করাল গ্রাস থেকে রক্ষা করতে বিএনসিসি’র মতো সংগঠন হতে পারে অন্যতম নিয়ামক শক্তি। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের উন্নত-সমৃদ্ধ সোনার বাংলা গড়ে তুলতে হলে আগামী প্রজন্মকে হতে হবে যথেষ্ট দায়িত্বশীল, সুশৃঙ্খল, আচার-আচরণে পরিমার্জিত। বিএনসিসি, স্কাউট ও গার্লস গাইডের মতো সংগঠনসমূহ ছাত্র-ছাত্রীদের এসব গুণাবলী অর্জনে শিক্ষা দান করে।

নিজের স্কুলজীবনে স্কাউটের সঙ্গে সম্পৃক্ততার কথা উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, এসব স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন সমাজ, পরিবার ও রাষ্ট্রের প্রতি তরুণ সমাজের দায়িত্ববোধ তৈরি করে। ঢাকার আশুলিয়ার বিএনসিসি’র প্রশিক্ষণ একাডেমির পূর্ণাঙ্গ অবকাঠামো বাস্তবায়িত হলে তাদের দক্ষতা আরো বৃদ্ধি পাবে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিএনসিসি এর মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল নাহিদুল ইসলাম খান।

You might also like