প্রথমবারের মত সৌদি আরবে পারমাণবিক চুল্লি

১৪৯

প্রথমবারের মতো পারমাণবিক চুল্লি স্থাপন করছে সৌদি আরব। সোমবার এই পরমাণু গবেষণা চুল্লির প্রকল্প উদ্বোধন করেছেন সৌদির যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান।

সোমবার কিং আব্দুল আজিজ সিটি ফর সাইন্স অ্যান্ড টেকনোলজি সফরে যান যুবরাজ। সেখানেই নবায়নযোগ্য বিদ্যুৎ, আণবিক বিদ্যুৎ, জেনেটিক মেডিসিন, এয়ারক্র্যাফট শিল্পের সাতটি প্রকল্পের উদ্বোধন করেন তিনি।

চলতি বছর মার্চে বিন সালমান পরমাণু অস্ত্র তৈরির ঘোষণা দিয়েছিলেন। মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিবিএসকে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে তিনি বলেছিলেন, সৌদি আরব পরমাণু অস্ত্র রাখতে চায় না। কিন্তু নিঃসন্দেহে ইরান পারমাণবিক বোমা বানাচ্ছে। আমরাও সেই পথই অনুসরণ করবো।

বলা হচ্ছে, সৌদি আরবের বিকাশমান পরমাণু শিল্পের প্রযুক্তি উন্নয়নে গবেষণার জন্য সহায়ক হবে এ চুল্লি। গত বছর আন্তর্জাতিক আণবিক শক্তি সংস্থা জানিয়েছিলো, সৌদি আরব দুটি পরমাণু চুল্লি তৈরির জন্য প্রস্তাবনা গ্রহণ করছে। ২০৩২ সালের মধ্যে ১৭ দশমিক ৬ গিগাওয়াট পরমাণু শক্তি উৎপন্ন করতে চায় দেশটি। এজন্য তৈরি করা হবে ১৭টি চুল্লি।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, সৌদি আরব বিদ্যুৎ উৎপাদনে প্রাকৃতিক জ্বালানি ব্যবহার কমিয়ে রপ্তানির পরিমাণ বাড়াতে চায়।

নিউজ ডেস্ক / বিজয় টিভি

You might also like