ফিরে আসছে মটোরলা’র ফ্লিপ ফোন রেজর !

আনতারা রাইসা: ২০০৪ সালে উন্মুক্ত করা হয়েছিলো মটোরলা রেজর ফোনটি। আইফোন আসার আগ পর্যন্ত এটিই ছিল বিশ্বের সবচেয়ে আইকনিক গ্যাজেট এবং সর্বোচ্চ বিক্রীত সেল ফোন। সম্প্রতি বের হওয়া এক টিজার ভিডিওতে দেখা যায় লেনোভো অধিকৃত এই ফোনটি আবারও ফিরে আসছে।

মটোরোলার এই মটো রেজর ফোনটি তারা আবার বাজারে এনেছে এই নভেম্বরের ১৩ তারিখ।  সেই ফ্লিপ সেট যার সাথে আমাদের বেশিরভাগ মানুষের ই ছোটবেলার স্মৃতি জড়িয়ে আছে। এটি মটোরলার তরফ থেকে তৃতীয় ফোল্ডেবল মোবাইল সেট হবে ।

এর আগে চলুন ছোট করে জেনে আসি মটোরলার ইতিহাস।

১৯২৮ সালে  মটোরলা প্রথম বাজারে আসে পল এবং জোসেফ গ্যালভিন এর হাত ধরে। আমেরিকার ইলিয়নসে এর যাত্রা শুরু হয়। পৃথিবীতে প্রথম সেলুলার ফোন এনেছিল এই মটোরলা কোম্পানি ই ।১৯৮৪ সালে প্রথমবারের মত মোবাইল ফোন বাজারে আনে এই কোম্পানি। তখনকার প্রযুক্তির বাজারে এই কোম্পানি তখন দাপিয়ে বেড়াচ্ছিল। পুরো পৃথিবীতে তারাই সবচেয়ে বড় মোবাইল ফোন মানুফাকচারিং কোম্পানি ছিল। ১৯৯২ সালে নোকিয়া বাজারে আসার পর যদিও মটোরলার ব্যবসায় কিছুটা বিঘ্ন ঘটে। তারপরও মটোরলা দীর্ঘদিন ব্যবসা করে। সেই সময় মটো এল মটো রেজর এইসব সিরিজের ফোনগুলি অসম্ভব জনপ্রিয় ছিল। মটোরলার পতন শুরু হলো যখন প্রথম এন্ড্রয়েড ফোন বাজারে এলো। স্যামসাং, অ্যাপেল এর মতো কোম্পানি বাজারে স্থান পেতে থাকল। ২০০৭ সাল থেকে ২০০৯ সাল, মাত্র দুই বছরে মটোরলার ৪.৩ বিলিয়ন ইউএস ডলারের ক্ষতি হয়। ক্ষতির পরিমাণ ক্রমশ বাড়ছিলো দেখে তারা টিকে থাকার জন্য ২০১১ সালে  মটোরলার মোবাইল সেকশন টা তারা দুইভাগে ভাগ করে দিল। মটোরলা সলিউশন্স এবং মটোরলা মবিলিটি নামে । ২০১২ সালে এসে ২.৩ বিলিয়ন ডলারে গুগল কোম্পানিটিকে কিনে নেয়। কিন্তু এরপর ও ভাগ্য ফেরেনি মটোরলার । সেই সময় গুগল মটোরলার ব্রান্ডিং এ বাজারে আনে নেক্সাস। কিন্তু গুগলের আসলে উদ্দেশ্য ছিল না এই ব্র্যান্ড নিয়ে সেরকম ব্যবসা করার। অনেক কাহিনীর পর গুগল মটোরলাকে বিক্রি করে দিল একটি  চাইনিজ কোম্পানি লেনোভো র কাছে। লেনোভোকে সবাই চিনেছেই এই মটোরলার ব্র্যান্ড ভ্যালুর জন্য । তারা মটোরলাকে পুরোপুরি ব্যবহারের পর এখন বাজারে আনলো এই মটোরলা রেজর। কারণ তারা চাইছিল মানুষের এই ফ্লিপ ফোনের নস্টালজিয়াকে নাড়া দিতে।

বর্তমানে মটোরলা রেজর একমাত্র ফোন যেটির সবচেয়ে ছোট ফোল্ডিং ডিসপ্লে। কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য মটোরলা রেজর সম্পর্কে যা আপনার জানা প্রয়োজন-

১। এটি একমাত্র ফোল্ডিং ফোন যেটিতে পানিরোধক টেকনোলজি ব্যাবহার করা হয়েছে।

২। নতুন এই ফোনে সিকিউরিটির জন্য রয়েছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর।

৩। এটি একমাত্র ফোল্ডিং এন্ড্রয়েড ফোন।

৪। এটিতে ব্যবহার করা হয়েছে স্ন্যাপড্রাগন ৭১০ প্রসেসর।

৫। এটিতে রয়েছে  ৬ গিগাবাইট র‍্যাম এবং ১২৮ গিগাবাইট ইন্টারনাল স্টোরেজ।

৬। এটিতে রয়েছে ১৬ মেগাপিক্সেল এর ব্যাক ক্যামেরা এবং ৫ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা।

৭। এটিতে ব্যবহার করা হয়েছে ২৫১০mah এর ব্যাটারি।

৮। নেই কোনো সিম স্লট ( ই-সিম ব্যবহার করা হয়) এবং হেডফোন জ্যাক।

বাংলাদেশি টাকায় এই ফোনের মুল্য হবে প্রায় দেড় লাখের মত।

এখন মটোরলা রেজর কিনবেন কি কিনবেন না সেই সিদ্ধান্ত আপনার ।

অনলাইন ডেস্ক/বিজয় টিভি