বলিউডের সোনালি যুগের নায়িকা রেখার জীবন গাঁথা

৩১

ভানুরেখা গণেশনের জন্ম ১০ অক্টোবর ১৯৫৪ সালে। তিনি হিন্দী চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় অভিনেত্রী রেখা । তাকে বলা হয় বলিউডের চিরসবুজ আবেদনময়ী অভিনেত্রী। ১৯৬৬ সালে রাঙ্গুলা রত্নম নামে একটি তেলেগু ছবির মাধ্যমে শিশুশিল্পী হিসেবে তার চলচ্চিত্র জীবন শুরু হয়।

নায়িকা হিসেবে ১৯৭০ সালে শাওন ভাদো নামে একটি ছবিতে অভিনয়ের মাধ্যমে তিনি বলিউডে যাত্রা শুরু করেন রেখা। সত্তর এর দশকে রেখা অভিনেত্রী হিসেবে তুমুল জনপ্রিয়তা ও পরিচিতি অর্জন করেন।

৪০ বছরের অভিনয় জীবনে রেখা ১৮০টির অধিক চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। তিনবার ফিল্মফেয়ার পুরস্কার জিতেন, দুইবার শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে ও একবার শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে। ১৯৮১ সালে উমরাহ জান চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন।

এতো অর্জনের পর ও ব্যক্তি জীবন তাঁর বেদনা রিক্ত। অমিতাভ বচ্চনের সঙ্গে বারবার জড়িয়েছে তাঁর নাম। ১৯৯০ সালে দিল্লীর প্রখ্যাত শিল্পপতি মুকেশ আগারওয়ালকে বিয়ে করেন রেখা। কিন্তু এক বছর পর মুকেশ রেখার ওড়না গলায় পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেন এবং চিরকুটে লিখে যান কারো কোন দোষ নেই।

বর্তমানে রেখা মুম্বাই এর বান্দ্রায় তার নিজ বাড়িতে একাকী জীবন কাটাচ্ছেন। তার সৌন্দর্যের কাছে এখনও যেন হার মানে শত কোটি তরুণী। বলিপাড়ার কোন অনুষ্ঠানই যেন যমেনা কাঞ্জিবালাম শাড়ি আর সিঁথি ভরা সিঁদুর পড়া রেখাকে ছাড়া।