বাংলামটরে শিশুর লাশ, বাবা থানায় নিল পুলিশ

মাদকাসক্ত পিতা ! শুধু সমাজের কাছে নয় সন্তানের কাছেও ভয়ংকর। তারই প্রমান মিলেছে রাজধানীর বাংলা মোটর লিংক রোডে। আড়াই বছরের এক শিশূ সন্তানকে হত্যা সহ আরেক সন্তানকে জিম্মি করে । মাদকাসক্ত পিতা নুরুজ্জামান। এমন সংবাদে জিম্মি করা শিশু সন্তান সহ নিহত শিশুটিকে উদ্ধারে রুদ্ধশ্বাস অভিযান চালায় আইন শৃংখলা বাহীনি ।

বুধবার সকাল ১০টা! রাজধানীর বাংলামোটর লিংক রোডের ১৬ নম্বর বাড়ি। নুরুজ্জামান কাজল নামের এক ব্যাক্তি তাঁর এক শিশু সন্তানকে হত্যা করে কৌশলে দাফনের ব্যবস্থা করছে এমন সংবাদে উৎসুক জনতার ভিড়।।

মুহুর্তেই বাসাটি ঘিরে ফেলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। সাধারন মানুষ ও আইন শৃংখলা বাহিনীর উপস্থিতি টের পেয়ে আরেক শিশু সন্তানকে ‘জিম্মি’ করে মাদকাসক্ত এই পিতা । আইন শৃংখলা বাহিনীর সদস্যরাও জিম্মি হওয়া জীবিত সন্তানটিকে উদ্ধারে নানা কৌশল অবলম্বন করতে থাকেন।

এরপর দীর্ঘ ছয় ঘণ্টার রুদ্ধশ্বাস নাটকীয়তা শেষে বেলা ২টার দিকে পুলিশ কৌশলে কাজলকে নিচ তলার সিঁড়ির কাছে নিয়ে এলে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা তার বড় ছেলে সুরায়েতকে অক্ষত অবস্থায় উদ্ধার করে।
কাজলের স্বজনরা জানান, দীর্ঘদিন ধরেই মাদকাসক্ত হওয়ায় কাজলের সাথে আত্বীয় স্বজনদের তেমন যোগাযোগ নেই। স্বজনদের ধারনা কাজল তার ছোট ছেলেকে খুন করে।

রমনা জোনের উপ-পুলিশ কমিশনার মারুফ হোসেন সরদার জানান,কাফনে মোড়ানো শিশুটি উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। জিম্মি হওয়া বড় ছেলে সুরায়েতকে উদ্ধার সহ অভিযুক্ত নুরুজ্জামানকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

তবে সাফায়াতের মৃত্যু বৈদ্যুতিক শকে হয়েছে দাবী, গ্রেফতার হওয়া অভিযুক্ত নুরুজ্জামানের ।

নিউজ ডেস্ক / বিজয় টিভি