বায়ু দূষণ : দিল্লিতে আবারো অনির্দিষ্টকালের জন্য স্কুল বন্ধ

বায়ু দূষণ বাড়তে শুরু করায় শুক্রবার থেকে দিল্লিতে অনির্দিষ্টকালের জন্য স্কুল বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। দিল্লির পরিবেশমন্ত্রী গোপাল রাই বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

জানা যায়, গত সোমবার খুলেছিল রাজধানীর সমস্ত স্কুল-কলেজ। মনে করা হয়েছিল,দূষণের কবল থেকে ধীরে ধীরে মুক্তি পাচ্ছে দিল্লি। কিন্তু এই সিদ্ধান্ত নিয়েই প্রশ্ন তুলে দেয় দেশটির সুপ্রিম কোর্ট।

কী করে পূর্ণবয়স্করা ‘ওয়ার্ক ফ্রম হোম’ করা সত্ত্বেও ৩-৪ বছরের খুদেদের স্কুলে পাঠানো হচ্ছে, শীর্ষ আদালত এই প্রশ্ন তুলে কড়া ধমক দেয় কেজরিওয়াল সরকারকে। এরপরই দিল্লি সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়, শুক্রবার থেকে ফের বন্ধ করে দেওয়া হবে সমস্ত স্কুল।

দিল্লির পরিবেশমন্ত্রী গোপাল রাই জানান, ধীরে ধীরে পরিবেশের উন্নতি হবে, এমন পূর্বাভাস পেয়েই আমরা স্কুল খোলার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম। কিন্তু দূষণ ফের বাড়তে শুরু করায় আমরা সিদ্ধান্ত নিয়ে শুক্রবার থেকে স্কুল বন্ধ রাখা হবে। পরবর্তী নির্দেশ না আসা পর্যন্ত তা বন্ধই রাখা হবে।

এর আগে, সুপ্রিম কোর্ট ২৪ ঘণ্টা সময় দিয়েছিল কেন্দ্র, দিল্লি ও পার্শ্ববর্তী রাজ্যগুলোকে। যেভাবে শিল্প ও যানবাহন থেকে দূষণের মাত্রা বাড়ছে এবং সেটাই বায়ুর গুণগত মান হ্রাসের প্রধান কারণ হয়ে দাঁড়াচ্ছে সে বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে শীর্ষ আদালত।

দেশের প্রধান বিচারপতি এনভি রামানা অরবিন্দ কেজরিওয়াল সরকারকে ভর্ৎসনা করে বলেন, ‘তিন-চার বছরের শিশুদের স্কুলে পাঠানো হচ্ছে। কিন্তু পূর্ণবয়স্করা বাড়িতে বসে কাজ করছে। আপনার সরকারের দিকে নজরদারি চালাতে আমরা কাউকে নিয়োগ করব।’

গত মাসে দিওয়ালির সময় থেকেই দিল্লির দূষণ ভয়ংকর চেহারা ধারণ করে। পরিস্থিতি এমন দাঁড়ায়, ১৩ নভেম্বর থেকে বন্ধ করে দেওয়া হয় সমস্ত স্কুল-কলেজ। অবশেষে গত সোমবার থেকে ফের খুলে দেওয়া হয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো। কিন্তু চলতি সপ্তাহেই তা বন্ধের নির্দেশ জারি করা হলো। আগামী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত বন্ধ রাখা হয়েছে সমস্ত ধরনের নির্মাণ সংক্রান্ত কাজও।

You might also like