বিজিবির ১৯৬ জনকে বীর মুক্তিযোদ্ধার সুযোগ-সুবিধা দেওয়া আদেশ বহাল

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) ১৯৬ জনকে বীর মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে সব সুযোগ-সুবিধা দিতে হাইকোর্টের আদেশ বহাল রেখেছেন আপিল বিভাগ।

বৃহস্পতিবার (১২ আগস্ট) প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগ এ আদেশ দেন।

আদালতে বিজিবি সদস্যদের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট আহসানুল করিম, ব্যারিস্টার সাবরিনা জেরিন ও ব্যারিস্টার আব্দুল কাইয়ূম লিটন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল শেখ মোহাম্মদ মোরশেদ।

এর আগে বিজিবির ওইসব মুক্তিযোদ্ধার গেজেট বাতিল করে প্রজ্ঞাপন প্রকাশ করে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়। মন্ত্রণালয়ের প্রকাশিত প্রজ্ঞাপন চ্যালেঞ্জ করে দায়ের করা রিটের শুনানি শেষে মন্ত্রণালয়ের প্রকাশিত প্রজ্ঞাপন স্থগিতের আদেশ দেন হাইকোর্ট।

পরে এই প্রজ্ঞাপন চ্যালেঞ্জ করে বাগেরহাটের সদর উপজেলার বেগুরগাতি গ্রামের মোল্লা মোশাররফ হোসেন, টাঙ্গাইলের সদর উপজেলারে বেথবাড়ীর ফজলুল হকসহ ১৯৬ জন পৃথক ৪টি রিট করেন।

গত বছরের ২৯ নভেম্বর চেম্বার আদালত হাইকোর্টের আদেশের ওপর স্থিতাবস্থা দিয়ে আবেদনকারী মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতা-আর্থিক সুবিধাদি দিতে নির্দেশ দেন।

একইসঙ্গে আবেদনটি শুনানির জন্য আপিল বিভাগের নিয়মিত পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চে পাঠিয়ে দেন।

রাষ্ট্রপক্ষের করা লিভ টু আপিলের শুনানি শেষে বৃহস্পতিবার আপিল বিভাগ তা খারিজ করে দেন। ফলে আর্থিক সুবিধাদি দিতে নির্দেশ বহাল রয়েছে বলে জানিয়েছেন আইনজীবী আব্দুল কাইয়ূম।