বিজ্ঞানও কারণ জানে না, দাবানল নিয়ে ট্রাম্পের দাবি

লাগামছাড়া করোনা সংক্রমণ আর বর্ণবৈষম্য তো ছিলই, হোয়াইট হাউসের দৌড়ে নতুন হাতিয়ার দাবানলও। সেই অস্ত্রেই ফের প্রতিপক্ষ ডোনাল্ড ট্রাম্পকে বিদ্ধ করলেন ডেমোক্র্যাট প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী জো বাইডেন। জানালেন, ট্রাম্প যে ভাবে জলবায়ু পরিবর্তনের ভূমিকা আর বিজ্ঞানকে অগ্রাহ্য করে চলেছেন, তাতে প্রেসিডেন্ট নিজেই প্রকৃতিতে অগ্নি সংযোগের কাজটা করছেন।

বিতর্কের সূত্রপাত মার্কিন প্রেসিডেন্টের ক্যালিফর্নিয়া সফরকে কেন্দ্র করে। গতকাল দাবানলে বিধ্বস্ত আমেরিকার পশ্চিমাংশের ক্যালিফোর্নিয়া প্রদেশ পরিদর্শনে এসেছিলেন ট্রাম্প। সেখানেই উপস্থিত সাংবাদিকদের তিনি বলে বসেন, ‘‘এখানে যা হচ্ছে, আমার মনে হয় না, তা বিজ্ঞান বুঝতে পারবে। বনাঞ্চলের রক্ষণাবেক্ষণ ঠিক করে করা হয় না বলেই এ ভাবে একরের পর একর জমি আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে যাচ্ছে।’’ অর্থাৎ জলবায়ু পরিবর্তন ও বিশ্ব উষ্ণায়নের গুরুত্ব সরাসরি অস্বীকার করে গিয়েছেন প্রেসিডেন্ট। কাল স্যাকরামেন্টোর বিমানবন্দরে এয়ার ফোর্স ওয়ান থেকে নামার পরে উল্টে ট্রাম্পকে বলতে শোনা গিয়েছে, ‘‘অল্প সময়ের মধ্যে একসঙ্গে অনেক গাছ পড়ে গেলে সেগুলি শুকিয়ে গিয়ে দেশলাই কাঠির মতো হয়ে যায়। সেগুলো থেকে আগুন লাগার সম্ভাবনা থাকে। এমনকি শুকনো পাতা থেকেও জঙ্গলে আগুন লাগে।’’ প্রেসিডেন্টকে স্বাগত জানাতে বিমানবন্দরে কাল ভিড় হয়েছিল ভালই।

ক্যালিফর্নিয়ার বিস্তীর্ণ অংশে  দাবানলের প্রভাব সামান্য কমলেও ওরেগনের অবস্থা এখনও শোচনীয়। মোট ২২ জন নিখোঁজ সেখানে।  গভর্নর কেট ব্রাউন অবশ্য আশপাশের প্রদেশের দমকল বাহিনীকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। গত কাল বৃষ্টির পূর্বাভাস থাকলেও হয়নি। শুকনো হাওয়ায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে অসুবিধে হচ্ছে বলে জানিয়েছেন তিনি। আগামী কাল বা পরশু ফের বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে। তবে বজ্রবিদ্যুৎ-সহ বৃষ্টি হলে নতুন করে আগুন লাগতে পারে বলে আশঙ্কা রয়েছে। সূত্র: আনন্দবাজার