বিশ্ব করোনা পরিস্থিতি ভয়াবহ, ১ দিনে আক্রান্ত ২৭ লাখ

করোনাভাইরাসের সবচেয়ে সংক্রামক ধরনের স্বীকৃতি পাওয়া ওমিক্রনের প্রভাবে বিশ্বে মোট আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৩০ কোটি ছাড়িয়েছে। তারমধ্যে শুক্রবার বিশ্বজুড়ে করোনা পজিটিভ হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন ২৬ লাখ ৮৯ হাজার ৯৬৬ জন।

এছাড়া, ২০২০ সালে মহামারি শুরুর পর থেকে এ পর্যন্ত প্রাণঘাতী এই রোগে বিশ্বজুড়ে মৃত্যু হয়েছে মোট ৫৪ লাখ ৯৬ হাজার ৭৯১ জনের। তার মধ্যে শুক্রবার মারা গেছেন ৬ হাজার ৩৬৫ জন।

শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের জন হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয় এক বিবৃতিতে প্রথম জানায় করোনায় মোটে আক্রান্তের সংখ্যায় ৩০ কোটির মাইলফলক অতিক্রম করেছে বিশ্ব। বিশ্ববিদ্যালয়ের সেন্টার ফর সিস্টেমস সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের দেওয়া বিবৃতিতে আরও বলা হয়, মহামারির দুই বছরের মধ্যে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৩০ কোটি ছাড়িয়েছে। তারমধ্যে শেষ ১০ কোটি শনাক্তে সময় লেগেছে মাত্র ৫ মাস।

মহামারির শুরু থেকেই করোনায় মোট আক্রান্ত-মৃত্যুর হিসেবে বিশ্বের দেশসমূহের মধ্যে শীর্ষে আছে যুক্তরাষ্ট্র। শুক্রবারও সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত-মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে সেই দেশেই।

মহামারি শুরু হওয়ার পর থেকে এ রোগে আক্রান্ত, মৃত্যু ও সুস্থতার হালনাগাদ সংখ্যা প্রকাশকারী ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটার্সের তথ্য অনুযায়ী, শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৮ লাখ ৪৮ হাজার ৫০২ জন এবং এ রোগে মারা সেখানে মৃত্যু হয়েছে ২ হাজার ২৫ জনের।

এছাড়া, এইদিন বিশ্বের আরও কয়েকটি দেশে করোনা পজিটিভ হিসেবে শনাক্ত হওয়া রোগীর সংখ্যা ছাড়িয়েছে লাখের ঘর। এই দেশগুলো হলো- ফ্রান্স (নতুন আক্রান্ত ৩ লাখ ২৮ হাজার ২১৪, ‍মৃত্যু ১৯৩), যুক্তরাজ্য (নতুন আক্রান্ত ১ লাখ ৭৮ হাজার ২৫০, মৃত্যু ২২৯), ভারত (নতুন আক্রান্ত ১ লাখ ৪১ হাজার ৩৭৪, ‍মৃত্যু ১৫), স্পেন (নতুন আক্রান্ত ১ লাখ ১৫ হাজার ৯০০, ‍মৃত্যু ১৫), আর্জেন্টিনা (নতুন আক্রান্ত ১ লাখ ১০ হাজার ৫৩৩, মৃত্যু ৪২) ও ইতালি (নতুন আক্রান্ত ১ লাখ ৮ হাজার ৩০৪, ‍মৃত্যু ২২৩)।

বিশ্বজুড়ে সক্রিয় করোনা রোগীর সংখ্যা বর্তমানে ৩ কোটি ৯৯ লাখ ২৩ হাজার ৩৫৬ জন। এই রোগীদের মধ্যে কোভিডের মৃদু উপসর্গ বহন করছেন ৩ কোটি ৯৮ লাখ ৩০ হাজার ২২৮ জন এবং গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় আছেন ৯৩ হাজার ১২৮ জন।

এছাড়া, শুক্রবার করোনা থেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন ৬ লাখ ৭৫ হাজার ১০৩ জন। এই নিয়ে মহামারির দুই বছরে কোভিডে আক্রান্ত হওয়ার পর সুস্থ হয়ে ওঠা মোট ব্যক্তির সংখ্যা পৌঁছেছে ২৫ কোটি ৮২ লাখ ১৫ হাজার ৩২৬ জনে।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে বিশ্বের প্রথম করোনায় আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। করোনায় প্রথম মৃত্যুর ঘটনাটিও ঘটেছিল চীনে।

তারপর অত্যন্ত দ্রুতগতিতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে পড়তে শুরু করে প্রাণঘাতী এই ভাইরাসটি। পরিস্থিতি সামাল দিতে ২০২০ সালের ২০ জানুয়ারি বিশ্বজুড়ে জরুরি অবস্থা জারি করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

কিন্তু তাতেও অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় অবশেষে ওই বছরের ১১ মার্চ করোনাকে মহামারি হিসেবে ঘোষণা করে ডব্লিউএইচও।

You might also like