বেসরকারি গ্রন্থাগারসমূহে লাইব্রেরিয়ান নিয়োগে অনুদান প্রদান করা হবে : সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী

৮৭

সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ বলেছেন, বই পড়া মানুষের মনের খোরাক যোগায় ও মানুষকে আলোকিত করে। আর এ ধরনের আলোকিত ব্যক্তিদের প্রচেষ্টা ও উদ্যোগে সারাদেশে ৮০০টির অধিক রেজিস্টার্ড বেসরকারি গ্রন্থাগার বা পাঠাগার গড়ে উঠেছে। কিন্তু দেখাশোনার জন্য জনবল না থাকার কারণে এসব পাঠাগারসমূহ সঠিকভাবে পরিচালনা করা যাচ্ছে না এবং পাঠকরাও সঠিক সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। সেটি বিবেচনায় নিয়ে এসব পাঠাগারসমূহে লাইব্রেরিয়ান নিয়োগের জন্য সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় হতে অনুদান প্রদানের ব্যবস্থা করা হবে।

আজ (২০ ডিসেম্বর) রোববার রাজধানীর গুলিস্তানস্থ জাতীয় গ্রন্থকেন্দ্র মিলনায়তনে জাতীয় গ্রন্থকেন্দ্র আয়োজিত ‘পড়ি বঙ্গবন্ধুর বই, সোনার মানুষ হই’ শীর্ষক ধারাবাহিক পাঠ কার্যক্রমে অংশগ্রহণকারী সেরা শিক্ষার্থীদের সনদ ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তিনি জানান, প্রয়োজনে অর্থ মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতায় নতুন অর্থনৈতিক কোড সৃষ্টি করা হবে যাতে প্রতি বছর বেসরকারি পাঠাগারের লাইব্রেরিয়ানদের বেতন পরিশোধের জন্য অনুদান প্রদান করা যায়।

জাতীয় গ্রন্থকেন্দ্রের পরিচালনা বোর্ডের সভাপতি ও সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. বদরুল আরেফীনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তৃতা করেন ‘পড়ি বঙ্গবন্ধুর বই, সোনার মানুষ হই’ শীর্ষক ধারাবাহিক পাঠ কর্মসূচির উপদেষ্টামণ্ডলীর সভাপতি বিশিষ্ট সাহিত্যিক ও গবেষক অধ্যাপক শামসুজ্জামান খান, উপদেষ্টা কমিটির সম্মানিত সদস্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য বিশিষ্ট বুদ্ধিজীবী অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক এবং বিশিষ্ট সাংবাদিক ও জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি সাইফুল আলম।

You might also like