ভাড়া বাড়ল লঞ্চেও

৭৪

কোভিড-১৯ এর সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় সর ধরনের পরিবহন ব্যবস্থায় ধারণ ক্ষমতার অর্ধেক যাত্রী পরিবহনের নির্দেশ সরকারের। আর এতে ক্ষতি পুষিয়ে নিতে বাসের পর লঞ্চের ভাড়াও বাড়ল ৬০ শতাংশ। তবে এ ক্ষেত্রে কেবিন বাদে বাড়তি ভাড়া শুধু লঞ্চের ডেকের ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য।

বৃহস্পতিবার দুপুরে সচিবালয়ে নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী লঞ্চের ভাড়া বাড়ানোর সিদ্ধান্তের কথা জানান। বৃহস্পতিবার (১ এপ্রিল) থেকে কার্যকর হচ্ছে এ ভাড়া।

এর আগে বুধবার (৩১ মার্চ) লঞ্চ মালিকদের সঙ্গে আলোচনার পর ভাড়া বাড়ানোর প্রস্তাবের চিঠি নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ে পাঠান বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) চেয়ারম্যান কমডোর গোলাম সাদেক। সেখানে ভাড়া ৬০ শতাংশ বাড়ানোর বিষয়টি বিবেচনায় নেওয়ার কথা বলা হয়।

অভ্যন্তরীণ যাত্রীবাহী লঞ্চের  বিদ্যমান ভাড়া ১০০ কিলোমিটার দূরত্বের জন্য জনপ্রতি যাত্রী ভাড়া  প্রতি কিলোমিটার ১ দশমিক ৭০ টাকা; ১০০ কিলোমিটারের অধিক দূরত্ব অর্থাৎ ১০০ কিলোমিটার পরবর্তি প্রতি কিলোমিটারের জন্য জনপ্রতি যাত্রী ভাড়া  প্রতি কিলোমিটার ১ দশমিক ৪০ টাকা এবং জনপ্রতি সর্বনিম্ন ভাড়া ১৮ টাকা।

করোনা ভাইরাস সংক্রমণকালীন অর্থাৎ সরকারি প্রজ্ঞাপনে বর্ণিত সময়ের জন্য যাত্রী ভাড়া পুনঃনির্ধারণ করার ফলে দাঁড়িয়েছে ১০০ কিলোমিটার দূরত্বের জন্য জনপ্রতি যাত্রী ভাড়া  প্রতি কিলোমিটার ২ দশমিক ৭২ টাকা; ১০০ কিলোমিটারের অধিক দূরত্ব অর্থাৎ ১০০ কিলোমিটার পরবর্তি প্রতি  কিলোমিটারের জন্য জনপ্রতি যাত্রী ভাড়া প্রতি কিলোমিটার ২ দশমিক ২৪ টাকা এবং জনপ্রতি সর্বনিম্ন ভাড়া ২৮ দশমিক ৮০ টাকা।