ভোমরা বন্দরে প্রবেশের অপেক্ষায় ১৬৫ ট্রাক পেঁয়াজ

গত দুই দিনে সাতক্ষীরার ভোমরা স্থল বন্দর দিয়ে কোন পেঁয়াজের ট্রাক ভারত থেকে দেশে প্রবেশ করেনি। তবে বন্দরের ওপারে ঘোজাডাঙ্গা সিমান্তে ১৬৫ ট্রাক ভারতীয় পেঁয়াজ আমদানির অপেক্ষায় রয়েছে বলে জানিয়েছেন ভোমরা সিএন্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের ব্যবসায়ী নেতা। যে কোন মুহূর্তে এই ট্রাকগুলো দেশে প্রবেশ করবে বলে আশা করছেন তিনি।

ভোমরা বন্দরের ব্যবসায়ীদের সংগঠন সিএন্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের কোষাধক্ষ্য মাকসুদ খান বলেন, যে সকল পেয়াজের ট্রাকগুলোর ডকুমেন্ট পাস করা রয়েছে সেই ট্রাকগুলো যে কোন সময় দেশে প্রবেশ শুরু করবে। তবে এখনো বিকেল ৪টা পর্যন্ত কোন ট্রাক দেশে প্রবেশ করেনি।

ভোমরা সিএন্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান নাসিম জানান, ভারতের ওপাশে ঘোজাডাঙ্গা বন্দরে পূর্বের এলসি করা ১৬৫ ট্রাক পেঁয়াজ আটকা পড়ে আছে। সোমবার আকষ্মিক পেঁয়াজ রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞা দেয় ভারতীয় কর্তৃপক্ষ। এ সময় আমদানির অপেক্ষায় থাকা পেয়াজ ভর্তি ট্রাকগুলো আটকে যায়।

তিনি বলেন, বর্তমানে একটন পেঁয়াজ ৩০০ ডলারে ভারত থেকে আমদানি করা হচ্ছিল। ভারতের অভ্যন্তরীণ উৎপাদন কম হওয়ায় মূল্য বাড়ানোর জন্যই পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ ঘোষনা করে। ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি করতে গেলে দাম নির্ধারণ করে দেয় ন্যাপেট নামে একটি সংস্থা। ন্যাপেট একটন পেঁয়াজের মূল্য এখন নির্ধারণ করেছে ৭০০ ডলার।

ভোমরা স্থল বন্দরের রাজস্ব কর্মকর্তা মহসিন হোসেন জানান, ভারতীয় পাড়ে কত ট্রাক পেঁয়াজ আমদানির অপেক্ষায় রয়েছে সেটির কোন পরিসংখ্যান আমাদের দপ্তরে নেই। তাছাড়া ভারত কেন হঠাৎ পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ ঘোষনা করলো সে বিষয়ে লিখিতভাবেও কিছু জানায়নি।

নিউজ ডেস্ক/বিজয় টিভি