মঠবাড়িয়ায় স্বতন্ত্রপ্রার্থী ও আওয়ামী লীগ প্রার্থীর পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় নৌকা প্রার্থী হোসেন মোশারেফ ছাকু ও গুলিশাখালী ইউপি চেয়ারম্যান রিয়াজুল আলম ঝনসহ নৌকা প্রার্থীর সমর্থকদের উপর হামলার প্রতিবাদে নৌকা প্রতীকের পক্ষে রোববার দুপুরে সংবাদ সম্মেলন করেছে উপজেলা আওয়ামী লীগ। মঠবাড়িয়া উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি ও পৌর মেয়র রফিউদ্দিন ফেরদৌসের তার নিজ বাসভবনে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য অভিযোগ করেন, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আশরাফুর রহমান দলীয় মনোনয় না পেয়ে তার ভাই স্বতন্ত্র প্রার্থী (আনারস) রিয়াজ উদ্দিনের সমর্থকরা নির্বাচনে পরাজয় জেনে এ সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে নির্বাচনী পরিবেশ বিনষ্টের চেষ্টা চালাচ্ছে। হামলায় নৌকার প্রার্থীসহ ২০জন গুরুতর আহত হয়। তিনি এ হামলায় জড়িতদের অবিলম্বে গ্রেফতার ও বিচার দাবি করেন।

অপরদিকে স্বতন্ত্র বিদ্রোহী প্রার্থী রিয়াজ উদ্দিন আহমেদ তার নির্বাচনী কার্যালয়ে পাল্টা সংবাদ সম্মেলন করে বলেন, শনিবার রাত ১০ টার দিকে ইউপি চেয়ারম্যান রিয়াজুল আলমের নেতৃত্বে গুলিসাখালী বাজারে তার (আনারস প্রতীক) নির্বাচনী কার্যালয় ও ইউনিয়ন ছাত্রলীগের কার্যালয় ভাঙচুর করে এবং তার সমর্থক ইউপি সদস্য আলাউদ্দিনকে মারধর করে। এতে স্থানীয় জনতা ক্ষিপ্ত হয়ে নৌকা প্রার্থী ও সমর্থকদের ওপর পাল্টা হামলা চালায়।

উল্লেখ্য, শনিবার রাতে নৌকা মার্কার চেয়ারম্যান প্রার্থী হোসাইন মোশারেফ সাকুর উপর হামলার অভিযোগ উঠেছে বিদ্রোহী প্রার্থী (আনারস প্রতীক ) রিয়াজ উদ্দিন আহমেদ এর সমর্থকদের বিরুদ্ধে। এ সময় গুলিশাখালী ইউপি চেয়ারম্যান রিয়াজুল আলম ঝনোসহ ২০ জনকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে আহত করে বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকেরা।

মঠবাড়িয়া থানার ওসি এম আর শওকত আনোয়ার জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। উপজেলার সব স্থানে পুলিশি টহল জোরদার করা হয়েছে। এ ঘটনায় পৃথক দুটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে ও হামলার ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ৭জনকে আটক করা হয়েছে।

নিউজ ডেস্ক /বিজয় টিভি