মার্গোট ররি’র ডাকাত জীবন শুরু

ক্যাপ্টেন জ্যাক স্প্যারো! নতুন করে পরিচয় করিয়ে দেওয়ার কিছু নেই। জনপ্রিয় ছবি পাইরেটস অব দ্য ক্যারাবিয়ান এর মূল চরিত্র। যেটিতে অভিনয় করে দর্শকদের মাঝে সাড়া ফেলে দিয়েছেন অভিনেতা জনি ডেপ।

২০০৩ সাল থেকে শুরু হয়েছে এই জলদস্যুর রোমাঞ্চকর যাত্রা। সেবার মুক্তি পেয়েছিল সিরিজের প্রথম ছবি ‘পাইরেটস অব দ্য ক্যারিবিয়ান :দ্য কার্স অব দ্য ব্ল্যাক পার্ল’। এরপর একে একে মুক্তি পেয়েছে এই সিরিজের পাঁচটি ছবি। সবগুলোই বেশ আলোচিত হয়েছে দর্শকদের কাছে।

আবার আসতে যাচ্ছে এই ফ্র্যাঞ্ছাইজির নতুন ছবি। তবে এর গল্পে থাকছে ভিন্নতা। শুধু তাই নয়। সবচেয়ে বড় খবর হচ্ছে এই নতুন ছবিতে জলদস্যু হিসেবে আর পরিচিত জনি ডেপকে দেখা যাবেনা। তার বদলে এবার জলদস্যুর নতুন জীবন শুরু হচ্ছে  হার্লে কুইন খ্যাত মার্গোট রবির।

মাত্র ২৯ বছর বয়সেই অস্ট্রেলীয় এই অভিনয়শিল্পী ও চলচ্চিত্র প্রযোজক নিজেকে হলিউডের সবচেয়ে পারিশ্রমিক গোনা একজন হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। পাঁচটি বাফটা অ্যাওয়ার্ডজয়ী, দুটি অস্কার মনোনয়ন পাওয়া মার্গোট রবি এর আগে ওয়ান্স আপন এ টাইম ইন হলিউডে অভিনয় করে সবার নজর কেড়েছেন। এবার পালা পাইরেট হিসেবে নিজের জাদু দেখানোর।

এই নতুন ছবির চিত্রনাট্য লিখেছেন বার্ডস অব প্রে এর চিত্রনাট্যকার ক্রিস্টিনা হাডসন। একদম নতুন গল্প ও চরিত্রের ওপর ভিত্তি করে পুরো সমু্দ্রযাত্রা এগোবে। যুক্ত হবে নতুন চরিত্র।  জেরি ব্রুখেইমার, যিনি এই সিরিজের আগের ছবিগুলো প্রযোজনা করেছেন, নতুন ছবিটির প্রযোজনার ভারও তাঁর কাঁধে। এই প্রযোজক এর আগে মার্গো রবির একাধিক ছবিও প্রযোজনা করেছেন।

মার্গো রবিকে এরপর দেখা যাবে ‘পিটার র‍্যাবিট টু: দ্য রানওয়ে’ ও ‘দ্য সুইসাইড স্কোয়াড’ ছবিতে। এর আগে ‘দ্য সুইসাইড স্কোয়াড’ ছবিতে অভিনয় করে দারুণ প্রশংসা কুড়িয়েছিলেন তিনি।