মালয়েশিয়ায় লকডাউনেও ১২ বাংলাদেশী ও রোহিঙ্গা সহ ৪৯ অভিবাসী আটক

৮৪০

মালয়েশিয়ায় করোনাকালে একটি নির্মাণ প্রকল্পে ইমিগ্রেশন বিভাগের সাড়াশি অভিযানে ১২ জন বাংলাদেশী নাগরিক ও ২৩ জন রোহিঙ্গা সহ মোট ৪৯ জন অভিবাসী শ্রামিক কে গ্রেফতার করা হয়েছে। রাজধানী কুয়ালালামপুর কেপালা বাটার্স বাটাম টু এলাকায় একটি কনস্ট্রাকশন সেক্টরে কর্মরত অবস্থায় এসব শ্রমিকদের আটক করা হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির স্থানীয় সংবাদমাধ্যম।

বৈধ ওয়ার্ক পারমিট, কোভিড-১৯ স্বাস্থবিধি সহ স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং সিস্টেম (এসওপি) লঙ্ঘন এবং বিভিন্ন অপরাধে বৃহস্পতিবার (২৫ ফেব্রুয়ারী) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত পরিচালিত অভিযানে তাদের আটক করা হয়।

আটককৃতদের মধ্যে বাংলাদেশের ১২ জন নাগরিক, ২৩ জন রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী এবং বাকি ১৪ জন ইন্দোনেশিয়ার নাগরিক। অভিযানের নেতৃত্বে ছিলেন ইমিগ্রেশন বিভাগের পুলিশ ও সিআইডিবি বিভাগের সদস্য। সেবেরং প্রী জেলা পুলিশ প্রধান নূরজাইনী মোহাম্মদ নূর বলেছেন, কোভিড -১৯ এর বিস্তার রোধে স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং সিস্টেম এসওপি নিশ্চিত করতে এই অভিযান পরিচালনা করা হয়েছিল। এসময় ২৩ জন শ্রমিকের কাছে কোভিড-১৯ ভাইরাস পরিক্ষার রিপোর্ট পাওয়া যায়নি কারণ দেশটিতে অভিবাসী কর্মীদের করোনা ভাইরাস পরিক্ষা করা বাধ্যতামূলক।

রাজ্য সিআইডিবির পরিচালক জাহিদি হাশিম বলেছেন, নির্মাণ সাইটে কর্মরত ঠিকাদার তার কর্মীদের যাবতীয় তথ্য দিতে ব্যর্থ হওয়ায় তাকে একটি নোটিশ দেওয়া হয়েছে।

মালয়েশিয়ায় করোনা নিয়ন্ত্রণে জরুরী অবস্থার পাশাপাশি দীর্ঘ সময় ধরে লকডাউন বহাল রয়েছে। জারি করা হয়েছে বিভিন্ন বিধি নিষেধ।

You might also like