মালয়েশিয়ায় ৫৪৫০ বাংলাদেশী গ্রেফতার; ফেরত পাঠানো হয়েছে দেশে

২৬

মালয়েশিয়ায় অভিবাসন বিভাগ ও পুলিশের অভিযানে ৫৪৫০ জন বাংলাদেশী সহ বিভিন্ন দেশের মোট ৫৯,১১৪ জন অভিবাসী কে গ্রেফতার করে তাদের নিজ দেশে ফেরত পাঠানো হয়েছে। ২০১৯ সন থেকে ২০২০ সনের ডিসেম্বর পর্যন্ত এই সময়ে অবৈধভাবে বসবাস সহ বিভিন্ন অপরাধে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তাদের আটক করেন। তবে এখনও ডিটেনশন ক্যাম্পে বাংলাদেশী সহ বিভিন্ন দেশের অভিবাসী নিজ দেশে ফেরার অপেক্ষায় আছেন। করোনা পরিস্থিতির কারনে প্রত্যাবর্তন ব্যাহত হচ্ছে।

মঙ্গলবার (১৬ ফেব্রুয়ারী) সকালে মালয়েশিয়া স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী দাতো হামজা জয়নুদ্দিন এক বিবৃতিতে এসব কথা জানান।

তিনি আরো বলেন, ২০২০ সনের জানুয়ারি থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত বিভিন্ন দেশের মোট ৩৭,০৩৮ জন অভিবাসী কে আটক করে তাদের নিজ দেশে ফেরত পাঠানো হয়েছে। এর মধ্যে, বাংলাদেশের ৫৪৫০ জন, ইন্দোনেশিয়া ১৭,০০২ জন, মায়ানমার ৩৩২২ জন, থাইল্যান্ড ২৩৫৮ জন ও পাকিস্তানের ১৪৯৩ জন নাগরিক সহ বাকিরা অন্যন্যা দেশের নাগরিক ।

মালয়েশিয়ায় অবৈধভাবে অবস্থান করে আটকের শিকার ১২’শত রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী কে আটক করা হয়েছে তাদের ফেরত পাঠানো হবে। দেশটির ইমিগ্ৰেশন বিভাগের প্রধান দাতো খায়রুল দাযাইমি দাউদ স্থানীয় একটি গনমাধ্যমকে এই তথ্য জানান। তিনি জানান, দেশটিতে অবৈধভাবে অবস্থান করার সময়ে বিভিন্ন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর অভিযানে আটকদের মধ্যে ১২’শত রোহিঙ্গা শরণার্থীদের চলতি মাসের ২৩ ফেব্রুয়ারি মায়ানমারে ফেরত পাঠানো হবে।

ইমিগ্রেশন প্রধান খায়রুল দাযাইমি দাউদ বলেছেন, “নির্বাসন কেন্দ্রগুলিতে আটক অবৈধ অভিবাসীদের দেশে ফেরত পাঠানো আমাদের স্বাভাবিক কর্মসূচির একটি অংশ। তবে এই মুহূর্তে মায়ানমারের অবস্থা বিবেচনা করে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থার একজন মুখপাত্র বলেছেন,এই মুহূর্তে রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠানো “উদ্বেগজনক” উল্লেখ করে বলেন, আটককৃতদের মধ্যে ঝুঁকিতে থাকা মহিলা ও শিশু সহ আন্তর্জাতিক সুরক্ষার প্রয়োজন হতে পারে।