‘মুক্তিযোদ্ধাদের যারা কাফের বলেছিল, তারাই আজ ভাস্কর্য নিয়ে বিতর্ক করছে’

৩৬

মুক্তিযোদ্ধাদের যারা কাফের বলেছিল, তারাই আজ ভাস্কর্য নিয়ে বিতর্ক করছে বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

বুধবার (২৩ ডিসেম্বর) জাতীয় প্রেস ক্লাবে স্বাধীনতা পরিষদ আয়োজিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

এসময় তিনি বলেন, যারা ধর্মকে পুঁজি করে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নিয়ে বিতর্ক করছে, তাদের কাছে ধর্মকে লিজ দেয়া হয়নি।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, আমরা পাকিস্তান আমল থেকে দেখছি যখন গণতন্ত্রকামী মানুষ আন্দোলন করেছে, তখন আইয়ুব খান ধর্মের দোহাই দিয়েছে, ইয়াহিয়া খান দিয়েছে। কিন্তু তারা কখনোই ধর্মের ধারেকাছে ছিল না। আজ যারা ধর্মের দোহাই দিচ্ছেন, আমরাও মুসলমান। আমরা আমাদের ধর্ম তাদের লিজ দেইনি।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, জিয়াউর রহমান একজন বিচক্ষণ ও ধূর্ত ষড়যন্ত্রকারী ছিলেন। তিনি দেশবিরোধী ষড়যন্ত্রে পেছনে থেকে কলকাঠি নেড়েছেন। তিনি আগে মোশতাককে ক্ষমতায় বসিয়েছেন। পরে তাকে সরিয়ে নিজেই ক্ষমতায় এসেছেন। তিনি ক্ষমতায় এসে কাদের পুনর্বাসন করলেন? স্বাধীনতাবিরোধীদের। দেশে এত রাজনীতিবিদ কিন্তু তিনি কাউকে পেলেন না। তিনি কাকে প্রধানমন্ত্রী করলেন? তিনি প্রধানমন্ত্রী করলেন শাহ আজিজুর রহমানকে, যিনি মুক্তিযুদ্ধের সময় পাকিস্তান সরকার প্রতিনিধির ডেপুটি প্রধান হিসেবে জাতিসংঘে গিয়ে বলেছেন, এখানে কোনো মুক্তিযুদ্ধ হচ্ছে না।

অনুষ্ঠানে স্বাধীনতা পরিষদের উপদেষ্টা হারুনুর রশিদের সভাপতিত্বে আওয়ামী লীগ এবং এর অঙ্গসংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা বক্তব্য রাখেন।

You might also like