রংপুর হাসপাতালের আগুন নিয়ন্ত্রণে

রংপুর হাসপাতালের মূল ভবনের আগুন প্রায় এক ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে নিয়ন্ত্রণে আনে ফায়ার সার্ভিসের তিনটি ইউনিট। ​সোমবার (২০ ডিসেম্বর) সোয়া ১১টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।

এর আগে সকাল সোয়া ১০টার দিকে হাসপাতালের তৃতীয় তলার ৭ নং ওয়ার্ডের চর্ম ও যৌন বিভাগের মানসিক ইউনিটে আগুনের সূত্রপাত ঘটে। তবে আগুন লাগার কারণ জানা যায়নি। এ সময় ওই ইউনিটে ৪০ জন রোগী ভর্তি ছিলেন। তাদের মধ্যে অন্তত ১৪-১৫ জন রোগী তাড়াহুড়ো করে নামার সময় আহত হয়েছেন। তবে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের দাবি, সব রোগী সুস্থ আছেন।

রমেক হাসপাতালের পরিচালক ডা. মো. রেজাউল করিম জানান, অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা জানার সঙ্গে সঙ্গে আমরা ফায়ার সার্ভিসকে জানাই। একই সময় ওয়ার্ড থেকে রোগীদের সরিয়ে নেওয়া হয়। ফায়ার সার্ভিসের ছয়টি ইউনিট দ্রুত আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, আগুনের ঘটনা তদন্তে তিন সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। তবে কবে নাগাদ কমিটির সদস্যরা প্রতিবেদন জমা দেবেন সে ব্যাপারে তিনি কিছু জানাতে পারেননি।

রংপুর মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. মো. একেএম নুরুন্নবী লাইজু বলেন, ওই ওয়ার্ডে ভর্তি ৪০ জন রোগী ভালো আছেন। কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। আগুনে মানসিক ওয়ার্ডের বেশি ক্ষতি হয়েছে। আমরা কারণ অনুসন্ধানের চেষ্টা করছি।

রংপুর ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের উপ-পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) মো. ছালেহ উদ্দীন বলেন, আগুন লাগার খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। এক ঘণ্টার কম সময়ের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হই। এ সময় ছয়টি ইউনিট কাজ করেছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে।

You might also like