রেল ব্যবস্থাকে আধুনিক ও যুগোপযোগী করে গড়ে তোলা হবে: রেলমন্ত্রী

৫৩

রেলপথমন্ত্রী মোঃ নূরুল ইসলাম সুজন বলেছেন, রেলব্যবস্থাকে আধুনিক ও যুগোপযোগী করে গড়ে তোলা হবে। বর্তমানে বাংলাদেশ রেলওয়েতে লোকবল সংকট রয়েছে। রেলসেবা ত্বরান্বিত করতে খুব স্বল্পসময়ের মধ্যে ১০-১৫ হাজার কর্মকর্তা-কর্মচারী নিয়োগ দেয়ার পরিকল্পনা রয়েছে সরকারের। বিগতসময়ে রেলসেবা ভেঙ্গে পড়েছিল। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রেলসেবাকে সেই ভগ্নদশা থেকে উদ্ধার করে রেলওয়েকে একটি লাভজনক প্রতিষ্ঠানে পরিণত করার পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করছেন।

আজ শুক্রবার রাজশাহী রেলভবন ও রেলস্টেশনের বিভিন্ন স্থাপনা-পরিদর্শনকালে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে মন্ত্রী এসবকথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, মুক্তিযুদ্ধের সময় সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল রেলওয়ে। বঙ্গবন্ধু যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশে রেলব্যবস্থার সংস্কারের কাজে হাত দিয়েছিলেন। কিন্তু ১৯৭৫ সালে তাঁকে সপরিবারে হত্যার মধ্য দিয়ে রেলের উন্নয়ন অগ্রযাত্রা ব্যাহত হয়েছে। ১৯৭৩ সালে রেলের জনবল ছিল ৬৮ হাজার, এখন সেখানে কমে হয়েছে ২৫ হাজার। বাংলাদেশ রেলওয়েকে সম্পূর্ণ আধুনিক করার সুদূরপ্রসারী পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করছে সরকার। রাজশাহীতে বহুতল রেলভবন নির্মাণ করা হবে।

তিনি বলেন, রাজশাহী-আব্দুলপুর পর্যন্ত ডাবল লাইন এবং সমস্ত রেল ব্যবস্থাকে ব্রডগেজ লাইনে রূপান্তর করার কাজ চলছে। প্রতিটি জেলার সাথে রেল লাইনের সংযোগ থাকবে। ঈশ্বরদী-জয়দেবপুর পর্যন্ত ডাবল লাইন করা হবে। উত্তরাঞ্চল থেকে কাঁচামাল যাতে অল্পসময়ে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন শহরে সহজে বাজারজাত করা যায় সেই পরিকল্পনাও সরকারের আছে। এ সময় তিনি জানান, উত্তরাঞ্চলে ইপিজেড গড়ে তোলার জন্য উপযুক্ত জায়গা স্থির করার কাজ চলছে। সরকারের নেপাল-ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে রেলযোগাযোগ প্রতিষ্ঠার পরিকল্পনা রয়েছে বলেও তিনি জানান।

পরিদর্শনকালে রেলওয়ের সচিব মো. সেলিম রেজা, মহাপরিচালক ডি এন মজুমদার, অতিরিক্ত মহাপরিচালক (পশ্চিম) অজয় কুমার পোদ্দারি এবং রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশন ম্যানেজার মো. আব্দুল করিমসহ রেলওয়ের কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

বিকেলে মন্ত্রী চাঁপাইনবাবগঞ্জের রহনপুর রেলওয়ে স্টেশন ও রাজশাহী কোর্ট স্টেশন পরিদর্শন করেন।

You might also like