রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আগুন: নিহত বেড়ে ১১ জন, নিখোঁজ ১৫৫ শিশু!

২৫

আগুনে বিধ্বস্ত কক্সবাজার উখিয়ার বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে আরও ৪ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ১১ জনে। এদিকে, আগুন নিভে যাওয়ার পর বেরিয়ে আসছে ক্ষয়ক্ষতির চিত্র।

আগুন কেড়ে নিয়েছে সবকিছু; মাথা গোজার ঠাঁই, খাদ্য ও পানি নিয়ে চরম দুর্ভোগে রোহিঙ্গারা। অগ্নিকাণ্ডের পর শতাধিক শিশু নিখোঁজ রয়েছে বলে দাবি করেছেন স্বজনরা। পরিস্থিতি সামাল দিতে কাজ করছে প্রশাসন।

কক্সবাজারের উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ভয়াবহ আগুনের তাণ্ডবের পর নতুন করে ঘর বাধার স্বপ্ন দেখছেন ক্ষতিগ্রস্ত রোহিঙ্গারা। নিজের বসতঘরের ভিটেমাটিতে নতুন করে আশ্রয় নেয়ার চেষ্টা করছেন তারা।

সোমবার (২২ মার্চ) বিকেলে উখিয়ার বালুখালী এইট ডব্লিউ নম্বর ক্যাম্পের একটি ঘর থেকে আগুন লাগে। মুহূর্তেই তা দাবানলের মত আরো তিনটি ক্যাম্পে ছড়িয়ে পড়ে। আগুন লাগার পর পরই ক্যাম্পগুলো থেকে রোহিঙ্গাদের নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেয়া হয়। তবে হুড়োহুড়িতে বহু মানুষ হতাহত হয়।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় ফায়ার সার্ভিসের ৭টি ইউনিট। পানি স্বল্পতার কারণে কিছুটা বেগ পেতে হয় তাদের। পাঁচ ঘণ্টার চেষ্টায় নিয়ন্ত্রণে আসে আগুন। কিন্তু ততক্ষণে পুড়ে ছাই হয়ে যায় চারটি ক্যাম্পের অন্তত ১০ হাজার ঘর।

এ ঘটনায় আহতদের বালুখালী আবুল কাশেম উচ্চ বিদ্যালয়ে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। প্রায় দুই হাজার মানুষ প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন। ক্ষতিগ্রস্ত ক্যাম্পগুলোতে বিভিন্ন দাতা সংস্থাসহ সরকারের পক্ষ থেকে খাদ্য ও অন্যান্য সহায়তা দেয়া হচ্ছে। এছাড়া আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত বাড়িগুলো সরিয়ে নিতে কাজ চলছে। তবে এখন পর্যন্ত আগুন লাগার কারণ জানা যায়নি।