শুরু হলো বিজয়ের মাস ডিসেম্বর

১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধ বাংলাদেশের সুদীর্ঘ রাজনৈতিক ইতিহাসের অন্যতম শ্রেষ্ঠ ঘটনা। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে সশস্ত্র স্বাধীনতা সংগ্রামের এক ঐতিহাসিক ঘটনার মধ্য দিয়ে বাঙ্গালি জাতির কয়েক হাজার বছরের সামাজিক, রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক স্বপ্ন, সাধ পূরন হয় এ মাসে।

বাঙালি জাতির সর্বশ্রেষ্ঠ অর্জন মুক্তিযুদ্ধের গৌরবদীপ্ত চূড়ান্ত বিজয় এ মাসের ১৬ ডিসেম্বর অর্জিত হয়। স্বাধীন জাতি হিসেবে সমগ্র বিশ্বে আত্মপরিচয় লাভ করে বাঙালিরা। অর্জন করে নিজস্ব ভূ-খন্ড ও সবুজের বুকে লাল সূর্য খচিত নিজস্ব জাতীয় পতাকা।

১৯৭১ সালের ২৫ শে মার্চ কালরাতে পাকিস্তানী জল্লাদ বাহিনী নিরস্ত্র, ঘুমন্ত বাঙ্গালীর উপর অতর্কিত হামলা চালিয়ে হাজার হাজার নিরস্র মানুষ। গ্রেফতার করা হয় বঙ্গবন্ধুকে। কিন্তু গ্রেফতার হবার আগেই আনুষ্ঠানিকভাবে স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়ে যান বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান। এবং তাঁর ডাকে সাড়া দিয়ে বাঙালি জাতি ঐক্যবদ্ধভাবে ঝাঁপিয়ে পড়ে মুক্তিযুদ্ধে।

ত্রিশ লাখ শহীদ আর দু’লাখ মা-বোনের সম্ভ্রমহানির বিনিময়ে স্বাধীনতা অর্জিত হওয়ায় বেদনাবিঁধূর এক শোকগাঁথার মাসও এই ডিসেম্বর।

১৯৭১ সালের ডিসেম্বর মাসের শুরু থেকেই মুক্তিযোদ্ধাদের গেরিলা আক্রমণ আর ভারতীয় মিত্রবাহিনীর সমন্বয়ে গঠিত যৌথবাহিনীর জল, স্থল আর আকাশপথে সাঁড়াশি আক্রমণের মুখে বর্বর পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর পরাজয়ের খবর চারদিক থেকে ভেসে আসতে থাকে।

এবং অবশেষে ১৬ ডিসেম্বর ঢাকার ঐতিহাসিক রেসকোর্স ময়দানে পাকিস্তানি বাহিনী আত্মসমর্পণ করতে বাধ্য হয়। ৯ মাসের রক্তক্ষয়ী মুক্তিযুদ্ধের শেষে অর্জিত হয় চূড়ান্ত বিজয়। আর জাতি অর্জন করে হাজার বছরের স্বপ্নের স্বাধীনতা।

You might also like