সরকারি পাইকারী বাজারে প্রকাশ্যে জাটকা বিক্রি; নিরব প্রশাসন

৬৭

নিষেধাজ্ঞা চলাকালীন সময়ে বাংলাদেশের ২য় মৎস্য অবতরন কেন্দ্রে প্রকাশ্যে চলছে জাটকা বিক্রির মহা উৎস্যব। সরকারি আইন অমান্য করে সরকারি পাইকারী বাজারে জাটকা বিক্রি করলেও প্রশাসন সহ সংশ্লিষ্টরা সবাই রয়েছে নিরবে।

এদিকে জাটকা বিক্রির সংবাদ সংগ্রহ করতে গেলে বিক্রেতারা ক্ষিপ্ত হয় সাংবাদিকদের ওপরে চেষ্টা করে ক্যামেরা ছিনিয়ে নেয়ার। তবে সরকারি বাজারে জাটকা বিক্রির ব্যাপারে জানতে চাইলে দায় সাড়া কথা বলছেন মৎস্য অবতরন কেন্দ্রের কতৃপক্ষ।

পহেলা নভেম্বর থেকে শুরু হয়ে ২০১৮ সালের জুন মাস পর্যন্ত ইলিশ সম্পদ বৃদ্ধি করতে ১০ ইঞ্চির ছোট ইলিশ ধরা, ক্রয়, বিক্রয় ও পরিবহনের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে সরকার। বরগুনা সহ আশপাশের নদী ও সাগর রয়েছে এই নিষেধাজ্ঞার আওতায়। তবে এ সময়ে বাংলাদেশের ২য় সর্ববৃহৎ পাথরঘাটার এ বিএফডিসি বাজারে চলছে প্রকাশ্যে জাটকা বিক্রি। হাক ডাক দিয়ে চলছে জাটকা বিক্রি। দেখলে বোঝার উপায় নেই যে জাটকা বিক্রিতে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে সরকার। আর এখান থেকে জাটকা যাচ্ছে রাজধানী সহ দেশের বিভিন্ন জেলায়।

তবে জাটকা বিক্রির ছবি তুলতে সরকারি এ বিএফডিসি বাজারে প্রবেশ করলে বিক্রেতারা ক্ষিপ্ত হয় সাংবাদিকদের ওপর। চেষ্টা করে ক্যামেরা ছিনিয়ে নেয়ার।

এদিকে পাথরঘাটা মৎস্য অবতরন কেন্দ্রের ব্যবস্থাপক লে. এম নুরুল আমিন বলেন, বিএফডিসি বাজারে বিক্রিত মাছ থেকে প্রতিদিন রাজস্ব আদায় করা বিএফডিসি কতৃপক্ষের কাজ। তবে কেউ জাটকা বিক্রি করলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে বিএফডিসি।

বি এফ ডি সি বাজারে বিক্রিত মাছের প্রত্যেক ১০০ টাকা থেকে ১ টাকা ২৫ পয়সা হারে রাজস্ব নিচ্ছে সরকার।

নিউজ ডেস্ক / বিজয় টিভি

You might also like