সিনহা হত্যা মামলার ৭ম দফা সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু

অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা হত্যা মামলায় ৭ম দফায় প্রথম দিনের সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়েছে।

সোমবার (১৫ নভেম্বর) সকাল সোয়া দশটায় কক্সবাজারের জেলা ও দায়রা জজ আদালতে মামলার বিচারিক কার্যক্রম শুরু হয়। মামলার ৬০তম সাক্ষী এসআই কামাল হোসেনের সাক্ষ্যগ্রহণের মধ্য দিয়ে শুরু হয় দিনের কার্যক্রম।

মামলার প্রথম তদন্তকারী কর্মকর্তা সহকারী পুলিশ সুপার জামিরুল হকসহ ৬ সাক্ষীকে আদালতে উপস্থাপন করা হয়েছে। এর মধ্যে আসামিপক্ষের আইনজীবির আবেদনের প্রেক্ষিতে সার্জন আইয়ুব আলীকে পুনরায় জেরার জন্য হাজির করা হয়।

সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান হত্যা মামলার ৭ম সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়েছে। এ দফায় সাক্ষ্যগ্রহণ চলবে ১৬ ও ১৭ নভেম্বর পর্যন্ত।

এর আগে কক্সবাজারের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তামান্না ফারাহ ও সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসেনের স্বাক্ষগ্রহণের মধ্য দিয়ে এই মামলার ৬ষ্ঠ দফা সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ হয়। এই দুই বিচারক সিনহা হত্যা মামলার ১৫ জন আসামির মধ্যে ১২ জন আসামির ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি গ্রহণ করেন।

আজ সকাল সাড়ে ৯টায় ওসি প্রদীপসহ এই মামলার ১৫ জন আসামিকে কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থায় আদালতে নিয়ে আসা হয়। তাদের সম্মুখে বাকি সাক্ষীদের একে একে জবানবন্দি নেওয়া হবে। জবানবন্দি শেষে আসামি পক্ষের আইনজীবীরা তাদের জেরা করতে পারেন। এই মামলায় এ পর্যন্ত ৫৯ জন সাক্ষীর জবানবন্দি নেওয়া হয়েছে।’

পিপি আরও জানান, আমরা বাকি সাক্ষীদের আদালতে উপস্থাপনের মাধ্যমে খুব দ্রুত এই মামলার বিচারিক কার্যক্রম শেষ করতে চাই।’

উল্লেখ্য, গত বছর ৩১ জুলাই রাতে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়কের টেকনাফ উপজেলার বাহারছড়া ইউনিয়নের শামলাপুর চেকপোস্টে পুলিশের গুলিতে নিহত হন সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান।