সুগন্ধা নদীতে জাহাজে বিস্ফোরণ: আরও ৫ জনের মৃত্যু

ঝালকাঠির সুগন্ধা নদীতে তেলের জাহাজে বিস্ফোরণের ঘটনায় দগ্ধ আরও পাঁচ জন মারা গেছেন। তারা সবাই শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন ছিলেন। মঙ্গলবার (১৬ নভেম্বর) ভোর থেকে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার মধ্যে তাদের মৃত্যু হয়। এ নিয়ে এ ঘটনায় ৬ জনের মৃত্যু হলো।

শেখ হাসিনা বার্নের আবাসিক সার্জন ডা. এসএম আইউব হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন,গত ১২ নভেম্বর ওই বিস্ফোরণের ঘটনায় দগ্ধ সাতজনকে শেখ হাসিনা বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়েছিল।তাদের মধ্যে দুইজন প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরে যান । তারা হলেন, ইমাম উদ্দিন (৩২) ও রুবেল (৩৮)। মঙ্গলবার ভোর থেকে রাত সাড়ে সাতটা পর্যন্ত একদিনেই বাকি পাঁচজন মারা গেলেন।

মঙ্গলবার মারা যাওয়া ব্যক্তিরা হলেন, শহিদ তালুকদার (৪০), মেহেদী হাসান (২৮), মো. রিপন (৪০), মো. রনি (২৭) ও আশিকুর রহমান (২৫)। তাদের শরীরের ৫০ থেকে ৮০ শতাংশ দগ্ধ হয়েছিল।

উল্লেখ্য, গত ১২ নভেম্বর ঝালকাঠির সুগন্ধা নদীতে ‌‘সাগর নন্দিনী-৩’ নামের একটি তেলবাহী জাহাজে বিস্ফোরণ ঘটে। এতে ঘটনাস্থলে একজন মারা যান। এছাড়া দগ্ধ ৭ জনকে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়।

ঝালকাঠি ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন লিডার মো. শহিদুল ইসলাম জানান, ওই দিন সকাল সাড়ে ৮টার দিকে জাহাজের পাম্পরুম থেকে অকটেন খালি করার সময় পাইপের মধ্যে বিস্ফোরণ ঘটে। এরপর স্থানীয় লোকজন ও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

ঝালকাঠি পদ্মা ডিপো সূত্রে জানা গেছে, জাহাজটি পেট্রোল ও ডিজেল নিয়ে চট্টগ্রাম থেকে ঝালকাঠিতে আসে। জাহাজটি থেকে পদ্মা ডিপোতে তেল খালাসের কথা ছিল।