সূর্যের অভিমুখে যাত্রা শুরু নাসার প্রথম মহাকাশযান

সর্বকালের সবচেয়ে দ্রুতগতির মহাকাশযান সফলভাবে উৎক্ষেপণ করেছে মার্কিন মহাকাশ গবেষণা প্রতিষ্ঠান নাসা।  ফ্লোরিডার কেনেডি স্পেস সেন্টার থেকে শুরু হয়েছে এই সূর্য জয়ের অভিযান।

সূর্যের রহস্য ভেদের এক মিশন নিয়ে পার্কার সোলার প্রোব নামে একটি উপগ্রহ সফলভাবে যাত্রা শুরু করেছে। নির্ধারিত সময়ের একদিন পর ফ্লোরিডার কেপ ক্যানাভেরাল থেকে নাসার নভোযানটি উৎক্ষেপণ করা হলো। এটি সূর্যের ৬০ লক্ষ কিলোমিটারের মধ্যে গিয়ে পৌঁছাবে এবং সূর্যের এত কাছাকাছি এর আগে কোনো যানই যেতে পারেনি।

সূর্যের যে উজ্জ্বল আলোকচ্ছটার অংশটি সূর্যগ্রহণের সময় দেখা যায় – যাকে বলে ‘করোনা’, এই যানটি তার ভেতর দিয়ে উড়ে যাবে।

বলা হচ্ছে, ১০০০ ডিগ্রি সেলসিয়াসেরও বেশি তাপ সহ্য করার ক্ষমতা রয়েছে প্রোবের।

সূর্যের চারদিকে উজ্জ্বল আভাযুক্ত যে এলাকা, যেটি ‘করোনা’ নামে পরিচিত, সরাসরি সেখানে গিয়ে ঢুকবে এই স্যাটেলাইট। তারপর সূর্যের চারদিকে প্রদক্ষিণ করতে করতে বোঝার চেষ্টা করবে এই নক্ষত্রের আচরণ। সাত বছরে সূর্যের চারদিকে ২৪ বার প্রদক্ষিণ করবে এই স্যাটেলাইট।

নাসা জানিয়েছে, ঘণ্টায় সাড়ে ৪ লাখ মাইল গতিতে এক মাস পর সূর্যের নিকটতম বুধ গ্রহ অতিক্রম করবে যানটি। এটি পরে আরো গন্তব্যে পৌঁছে অবস্থান নেবে সূর্যের ৪০ লাখ মাইল দূরত্বের মধ্যে। আগামী সাত বছর থাকবে সূর্যের কক্ষপথে।

সূত্র: দ্য গার্ডিয়ান, বিবিসি

 

নিউজ ডেস্ক / বিজয় টিভি